সাতক্ষীরায় বিএনপির ত্রাণ বহরে হামলা, আহত ১০

প্রকাশিতঃ ৯:৪৪ অপরাহ্ণ, রবি, ২১ জুন ২০

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : জেলার শ্যামনগরে বিএনপির ত্রাণ বহরে হামলা চালিয়েছে স্থানীয় ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতা-কর্মীরা। এসময় ভাংচুর করা হয়েছে একটি প্রাইভেটকারসহ কয়েকটি মোটর সাইকেল। এতে বিএনপির ১০ জন নেতা কর্মীরা আহত হয়েছেন বলে জানা যায়।

রোববার (২১ জুন) উপজেলার কাশিমাড়ি ইউনিয়নের চুনা ব্রিজের কাছে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন, সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলা যুবদলের সভাপতি আজিবর রহমান, সাবেক ছাত্র নেতা মাসুদ, ছাত্রদল কর্মী রাসেল, যুবনেতা আনিছ, মিঠু, জহিরুল ইসলাম, মোস্তফা মিন্টু, রবিউল ইসলা, মামুন ও আব্দুস ছালাম।

সাতক্ষীরা জেলা বিএনপির আহবায়ক এড. সৈয়দ ইফতেখার আলী জানান, “ বিএনপি নেতাকর্মীদের নিয়ে শ্যামনগরে আম্পানে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করতে যাচ্ছিলাম। পথিমধ্যে বেলা ১১টার দিকে কাশিমাড়ি ইউনিয়নের চুনা ব্রিজের কাছে পৌঁছালে স্থানীয় সংসদ সদস্য জগলুল হায়দারের ছেলে উপজেলা যুবলীগের যুগ্নআহবায়ক রাজিব হায়দারের নেতৃত্বে ছাত্রলীগ-যুবলীগের নেতা-কর্মীরা তাদের উপর অতর্কিত হামলা চালায়।

ইফতেখার আলী জানান, “তারা অমাদের উপর দুই দফায় হামলা চালায়। হামলাকারীরা এ সময় তাদের কমপক্ষে ১০ জন নেতাকর্মীকে পিটিয়ে আহত করে। একই সাথে ভাংচুর করা হয় তাদের একটি প্রাইভেটকারসহ ৮/১০ টি মোটরসাইকেল।

তিনি আরো জানান, হামলাকারীদের ভয়ে আহত বিএনপির নেতাকর্মীরা স্থানীয় বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

তবে সংসদ সদস্য জগলুল হায়দারের ছেলে উপজেলা যুবলীগের যুগ্নআহবায়ক রাজিব হায়দার ঘটনা স্থলে ছিলেন না এবং বিষয়টি জানেন না বলে দাবি করে বলেন, “পরে শুনেছি যে বিএনপির লোকজন যারা ত্রাণ দিতে যাচ্ছিল তাদের নিজেদের মধ্যে কি ঝামেলা হয়েছে।”

এদিকে, এ ঘটনায় জেলা বিএনপির আহবায়ক এড. সৈয়দ ইফতেখার আলী দুপুরে তার সাতক্ষীরা শহরের কামলনগরের বাড়ির সামনে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। একইসাথে তিনি দোষী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা ও তাদের গ্রেফতারের দাবি জানান।

সময় জার্নাল/

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।