হেরে ইতিহাসের অংশ হলো বাংলাদেশ

প্রকাশিতঃ ৫:৫৬ অপরাহ্ণ, রবি, ২৪ নভেম্বর ১৯

স্পোর্টস ডেস্ক: জয় কিংবা ড্র নয়, ইনিংস হার এড়ানোটাই বড় চ্যালেঞ্জ ছিল বাংলাদেশের সামনে। তবে সেই লক্ষ্যে নিজেদের সক্ষমতা দেখাতে পারলেন না টাইগাররা। তৃতীয় দিন খেলা ১ ঘণ্টা না গড়াতেই অলআউট হলেন তারা। এদিকে দুর্দান্ত পারফরম করে ম্যাচসেরা ও সিরিজসেরা হয়েছেন ইশান্ত শর্মা।

ঐতিহাসিক কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে দিবা-রাত্রির টেস্টে বাংলাদেশকে ইনিংস ও ৪৬ রানে হারালো স্বাগতিক ভারত, গড়লেন ইতিহাস। ফলে দু’ম্যাচের সিরিজ ২-০ ব্যবধানে জিতে নিলো টিম ইন্ডিয়া। ইন্দোরে সিরিজের প্রথম টেস্ট ইনিংস ও ১৩০ রানে জিতেছিলো বিরাট কোহলির দল।

প্রথম ইনিংসে ১০৬ রানে অলআউট হয় বাংলাদেশ। জবাবে অধিনায়ক কোহলির ১৩৬ রানে ৯ উইকেটে ৩৪৭ রান তুলে প্রথম ইনিংস ঘোষনা করে ভারত। ফলে প্রথম ইনিংসে ২৪১ রানে পিছিয়ে পড়ে বাংলাদেশ।

পিছিয়ে থেকে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করে ১৯৫ রানে অলআউট হয় বাংলাদেশ। এই ইনিংসে ৪১ দশমিক ১ ওভার ব্যাট করে টাইগাররা। তৃতীয় দিন খেলা শুরুর পর ৪৭ মিনিট ক্রিজে টিকতে পারে বাংলাদেশ।

এই ইনিংসে বাংলাদেশের পক্ষে মুশফিকুর রহিম ৭৪, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ৩৯ আহত অবসর, আল-আমিন ২১ ও মেহেদি হাসান মিরাজ ১৯ রান করেন। ভারতের উমেশ ৫টি ও ইশান্ত ৪টি উইকেট নেন।

দুর্দান্ত এই জয়ে বেশ কয়েকটি রেকর্ডও গড়েছে বিরাট কোহলির দল। দারুণ সময় কাটানো দলটি দেশের মাটিতে জিতল টানা ১২ সিরিজ। প্রথম দল হিসেবে টানা চার টেস্টে জিতল ইনিংস ব্যবধানে। বাংলাদেশের আগে দক্ষিণ আফ্রিকাকে সিরিজের শেষ দুই টেস্টে হারিয়েছিল ইনিংস ব্যবধানে।

নিজেদের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো টানা সাত টেস্ট জিতল ভারত। এর সবকটিই টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে। ৭ ম্যাচে ৩৬০ পয়েন্ট নিয়ে চূড়ায় রয়েছে বিরাট কোহলির দল। ১১৬ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে অস্ট্রেলিয়া। একমাত্র দল হিসেবে চ্যাম্পিয়নশিপে অপরাজিত রয়েছে ভারত।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ