হোয়াইট হাউজের সামনে বিক্ষোভ, প্রাণভয়ে বাঙ্কারে লুকান ট্রাম্প

প্রকাশিতঃ ২:৩৮ অপরাহ্ণ, সোম, ১ জুন ২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মিনিয়াপোলিসে পুলিশের হাতে নিরস্ত্র কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েড খুন হওয়ার জেরে বর্ণবাদবিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল যুক্তরাষ্ট্র। স্থানীয় সময় শুক্রবার রাতে ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদ জানাতে হোয়াইট হাউসের সামনে জড়ো হয়েছিলেন বিক্ষোভকারীরা। সেখানে তারা সিক্রেট সার্ভিস কর্মকর্তাদের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ায়। পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠলে এক পর্যায়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প হোয়াইট হাউসে মাটির নীচে একটি বাঙ্কারে সাময়িক সময়ের জন্য আশ্রয় নিয়েছিলেন।

দ্য নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে সোমবার এ খবর দিয়েছে এনডিটিভি। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এক ঘণ্টার কিছু কম সময় ব্যাঙ্কারে অবস্থান নিয়েছিলেন ট্রাম্প। তবে ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প ও তাদের ছোট ছেলে ব্যারন ট্রাম্প বাঙ্কারে আশ্রয় নিয়েছিলেন কিনা তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

সিএনএনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শুক্রবার সন্ধ্যায় কয়েকশ’ বিক্ষোভকারী হোয়াইট হাউসের সামনে জড়ো হয়েছিলেন। এ সময় তারা ফ্লয়েড হত্যার বিচার দাবিতে ও ট্রাম্পের বিরুদ্ধে নানা স্লোগান দেন। এক পর্যায়ে সিক্রেট সার্ভিস কর্মকর্তাদের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ায় বিক্ষোভকারীরা। শনিবার ভোর পর্যন্ত দু’পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি-ধস্তাধ্বস্তি চলে। এ সময় উভয়পক্ষেই বেশ কয়েকজন আহত হন। গ্রেপ্তার করা হয় ছয় বিক্ষোভকারীকে।

সেদিন হোয়াইট হাউসের সামনে যে বিক্ষোভ হয়েছিল তা দেখে ট্রাম্প প্রশাসনের অনেক কর্মকর্তা রীতিমতো বিস্মিত হয়েছিলেন বলে নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

স্থানীয় সময় রোববারও যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় সব শহরে বর্ণবাদবিরোধী বিক্ষোভ হয়েছে। ঘটেছে ব্যাপক সহিংসতার ঘটনাও। এদিনও হোয়াইট হাউসের সামনে পুলিশের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষ-অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। ২০টি রাজ্যের ৪০টি শহরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কারফিউ জারি করা হলেও বিক্ষোভ-সংঘর্ষ অব্যাহত আছে এখনও।

সময় জার্নাল/

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।