‘২০২০ সাল শেষে করোনার শিকার হবেন ৬৭ কোটি ভারতীয়’

প্রকাশিতঃ ১১:২৪ পূর্বাহ্ণ, শনি, ৩০ মে ২০

সময় জার্নাল ডেস্ক: দিন যত যাচ্ছে ভারতে করোনা পরিস্থিতি ততই ভয়াবহ হচ্ছে। চলতি বছর শেষে দেশটিতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৬৭ কোটিতে পৌঁছাবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। আরও ভয়ঙ্কর তথ্য হচ্ছে, এর মধ্যে ৯০ শতাংশ মানুষ জানতেই পারবে না যে তারা করোনায় আক্রান্ত।

তবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, জুলাইয়ের শেষ থেকেই ভারতে করোনা সংক্রমণের হার কমতে থাকবে। অন্যদিকে, আন্তর্জাতিক রেটিং এজেন্সি স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড পুওরের মতে, সেপ্টেম্বরের আগে ভারতে করোনা সংক্রমণ শীর্ষে পৌঁছবে না। সবটাই জল্পনা। তবে, এটাও ঠিক প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য ভারতীয়দের মানসিকভাবে প্রস্তুত থাকতে হবে।

এমত অবস্থায় সবকিছু বিশ্লেষণ করে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব মেন্টাল হেলথ অ্যান্ড নিউরোসায়েন্সেস (Nimhans)-এর ডাক্তাররা বলছেন, লকডাউন উঠে গেলেই ভারতে করোনা সংক্রমণ পুনরায় বাড়বে। সেইসঙ্গে গোষ্ঠী সংক্রমণের পর্যায়ে পৌঁছে যাবে।

নিমহ্যান্সের ধারণা, ২০২০ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে ভারতের মোট জনসংখ্যার অর্ধেক করোনার শিকার হবে। বছর শেষে প্রাণঘাতী ভাইরাসে ৬৭ কোটি ভারতীয় আক্রান্ত হবেন।

আরও একটা কথাও বলছে নিমহ্যান্সের চিকিত্‍‌সকেরা। এই ৬৭ কোটি ভারতীয়ের মধ্যে ৯০ শতাংশই জানতে পারবেন না তারা করোনা পজিটিভ। কারণ, বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই সংক্রমণের বাহ্যিক কোনও লক্ষণ বা উপসর্গ দেখা যাবে না। মাত্র ৫ শতাংশের অবস্থা সংকটজনক হবে। তাদেরই হাসপাতালে ভর্তি করতে হবে। হিসাব অনুযায়ী, ৬৭ কোটির ৫ শতাংশ যদি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন তা হলেও সংখ্যাটা গিয়ে পৌঁছবে প্রায় তিন কোটিতে। সূত্র: এই সময়

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।