৪৫ মিনিটের বৃষ্টিতে জলে থৈ থৈ চট্টগ্রাম

প্রকাশিতঃ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ, শনি, ২৫ মে ১৯

চট্টগ্রাম থেকে সংবাদদাতা : সময়টা মাত্র ৪৫ মিনিট। তবে সেই পৌনে ১ ঘন্টার বৃষ্টিতেই হাঁটু পানিতে ডুবেছে চট্টগ্রাম মহানগরীর বিভিন্ন এলাকা।

শুক্রবার রাত ৮টা থেকে পৌনে ৯টা পর্যন্ত ঝড়ো হাওয়াসহ এ বৃষ্টিপাত হয়। রাত নয়টা পর্যন্ত চট্টগ্রামে ৩৫ দশমিক ৬ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পতেঙ্গা আবহাওয়া অফিসের আবহাওয়াবিদ মেঘনাদ তঞ্চঙ্গা।

তবে গরম থেকে রেহাই পেতে বৃষ্টির জন্য সবারই ছিল হাহাকার। তবে বৃষ্টিতে গরম কমলেও নগরীর অনেক জায়গা পানিতে তলিয়ে যায়। তাই ঈদের কেনাকাটা করতে যাওয়া মানুষজন সহ শ্রমজীবীরাও ভোগান্তিতে পড়ে যান।

ছবিতে দেখা যাচ্ছে আলমাস সিনেমা হলের সামনে থেকে ওয়াসার মোড় পর্যন্ত রাস্তাটির থৈ থৈ অবস্থা।

নগরীর বিভিন্ন এলাকায় খোঁজ নিয়ে জানা যায়, রাত ৮টার পর থেকে মুষলধারে বৃষ্টিপাত শুরু হয়। মাত্র ৪৫ মিনিটের বৃষ্টিতে নগরীর মুরাদপুর, কাতালগঞ্জ, বাটালী রোড, ষোলশহর, নাসিরাবাদ, আগ্রাবাদসহ বিভিন্ন এলাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়।

এসব এলাকায় সড়কগুলো হাঁটু সমান পানিতে ডুবে যায়।

নগরীর আতুরার ডিপো এলাকার বাসিন্দা ফরিদ উদ্দিন দেশ রূপান্তরকে বলেন, নগরীর জামাল খান থেকে আতুরার ডিপো যাওয়ার পথে তিনি কাতালগঞ্জ এলাকায় পানিতে আটকা পড়েন। সেখানে রাস্তার ওপর হাঁটু পরিমাণ পানি হয়েছে।

নগরীর মুরাদপুর এলাকার দোকানদার মাহমুদুল হক জানান, বৃষ্টির পরপরই মুরাদপুর এলাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়।

এ সময় মুরাদপুর মোড়ে প্রচুর যানবাহন আটকা পড়ে।

নগরীর ঝাউতলা এলাকার বাসিন্দা সাইফুদ্দিন খালেদ জানান, নগরীর বাটালী রোড ও এনায়েত বাজার এলাকায় রাস্তার ওপর হাঁটু পানি হয়েছে। পানির কারণে রিকসা ও টেক্সিচালকরা যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করছে।

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ