৫ ডিসেম্বর থেকে ঢাকায় শুরু হচ্ছে সিরামিক এক্সপো বাংলাদেশ

প্রকাশিতঃ ৯:০৪ অপরাহ্ণ, শনি, ৩০ নভেম্বর ১৯

সময় জার্নাল প্রতিবেদক: আগামী ৫ ডিসেম্বর ঢাকায় শুরু হচ্ছে সিরামিক পণ্যের মেলা সিরামিক এক্সপো বাংলাদেশ-২০১৯। রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় তিন দিনব্যাপী এ আন্তর্জাতিক মেলা হবে। এর আয়োজন করছে বাংলাদেশ সিরামিক ম্যানুফ্যাকচার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিসিএমইএ)। দেশে দ্বিতীয় বারের মতো এ মেলায় বাংলাদেশসহ ২০ দেশের ১৫০টি ব্র্যান্ড অংশগ্রহণ করছে।

শনিবার (৩০ নভেম্বর) রাজধানীর ঢাকা ক্লাবে মেলা উপলক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান বিসিএমইএ’র সভাপতি মো. সিরাজুল ইসলাম মোল্লা। এতে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ইরফান উদ্দিন, শেলটেক গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) তানভীর আহমেদ প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, আগামী ৫ ডিসেম্বর মেলার উদ্বোধন করবেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। মেলার সমাপনী অনুষ্ঠান হবে ৭ ডিসেম্বর হোটেল রেডিসন ব্লুতে। মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান।

তিন দিনব্যাপী প্রদর্শনী প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত ক্রেতা-বিক্রেতাসহ সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

ওমেন বাংলাদেশের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় মেলায় একই ছাদের নিচে ২০টি দেশের মোট ১২০টি প্রতিষ্ঠান ও ১৫০টি ব্র্যান্ড অংশগ্রহণ করবে। এ ছাড়া ৩০০ আন্তর্জাতিক প্রতিনিধি ও ৫০০ জন বায়ার্স হোস্ট উপস্থিত থাকবেন।

বিজিএমইএ’র সভাপতি সিরাজুল ইসলাম মোল্লা জানান, গত ১০ বছরে সিরামিক খাতের উৎপাদন বেড়েছে ২০০ শতাংশ এবং বিনিয়োগ বেড়েছে প্রায় ২০ শতাংশ। ৫০টিরও বেশি দেশে রফতানি হচ্ছে।

তিনি আরও জানান, এ শিল্পে প্রায় ৮ হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগ রয়েছে। এ খাতের সঙ্গে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে প্রায় ৫ লাখ মানুষ জড়িত আছে।

সাধারণ সম্পাদক এরফান উদ্দিন বলেন, উন্নত, গুণগতমান ও আকর্ষণীয় ডিজাইনের কারণে বিশ্ব বাজারে বাংলাদেশের পণ্যের কদর বাড়ছে। শুধু তাই নয়, একই সঙ্গে নতুন নতুন বাজার সৃষ্টি হচ্ছে।

আয়োজকরা জানান, সিরামিক এক্সপো দেশের দ্বিতীয় ও সর্ব বৃহৎ আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী। এখানে প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক ও সরবারহকারীরা তাদের নতুন নতুন পণ্য আধুনিক প্রযুক্তি এবং নিজেদের দক্ষতা বিশ্বব্যাপী তুলে ধরার সুযোগ পাবে।

এ মেলায় বাজারজাতকরণের পাশাপাশি ব্যবহারে সচেতনতা বাড়ানো হবে সেই সঙ্গে থাকবে পণ্য অর্ডারের সুযোগ।

ফেসবুকের মাধ্যমে মতামত জানানঃ