সম্পূরক শিক্ষাবৃত্তির ‌দাবির সাথে থাকবে জবি ছাত্রলীগ ও ১৩১ শ্রেণী প্রতিনিধি

প্রকাশিতঃ ৭:৫৮ অপরাহ্ণ, রবি, ১৪ জুন ২০

সময় জার্নাল প্রতিবেদক : করোনাকালীন শিক্ষার্থীদের বাসাভাড়া ও শিক্ষা সংকট নিরসনে শিক্ষার্থীদের ‘সম্পূরক শিক্ষাবৃত্তি’র দাবিকে স্বাগত জানিয়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) শাখা ছাত্রলীগ। শিক্ষার্থীদের স্বার্থে এ দাবির সাথে থেকে কাজ করবেন বলে জানান তারা। একইসাথে বিশ্ববিদ্যালয় গঠিত কমিটিকে শিক্ষার্থীদের তথ্য দিয়ে প্রশাসনের পাশে থাকতে চান।

এদিকে গত শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের ১৩১ জন শ্রেণী প্রতিনিধি ‘সম্পূরক শিক্ষাবৃত্তি’র দাবিকে স্বাগত জানিয়ে একটি বিবৃতি দেয় তারা।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সম্মেলন আয়োজন কমিটির যুগ্ন আহ্বায়ক সৈয়দ শাকিল ও যুগ্ন আহ্বায়ক ইব্রাহিম ফরাজি গণমাধ্যমকে বলেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সবসমসয় শিক্ষার্থীদের কল্যাণে কাজ করে থাকে। আর শিক্ষার্থীদের ‘সম্পূরক শিক্ষাবৃত্তি’র যে দাবি এটা একটা যৌক্তিক দাবি। শিক্ষাবৃত্তি পাওয়া সকলের অধিকার। আমরা শিক্ষার্থীদের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সাথে কথা বলেছি আবারও বলবো। এ সমস্যা সমাধানে বিশ্ববিদ্যালয় গঠিত কমিটিকে শিক্ষার্থীদের বিষয়ে তথ্য দিয়ে সহায়তা করতে প্রস্তুত আমরা।

তারা আরও বলেন, শিক্ষার্থীদের যে কোন সমস্যা ও যৌক্তিক দাবিতে আমরা তাদের সাথে থাকবো। আমরা শিক্ষার্থীদের সমস্যার সমাধান চাই। শিক্ষার্থীদের কল্যাণে আমরা অতীতেও যেভাবে কাজ করেছি এখনো করবো।

প্রসঙ্গত, গত ১০ জুন ক্যাম্পাসের ছাত্রসংগঠন ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের ১৯ নেতৃবৃন্দ করোনায় বাড়ি ভাড়া ও শিক্ষা সংকট নিরসনে সম্পূরক শিক্ষাবৃত্তির দাবি জানায়। ইতোমধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বাসাভাড়া সমস্যা সমাধানে একটি কমিটিও গঠন করেছে। শিক্ষার্থীদের দাবি, বিশ্ববিদ্যালয়ে সকল ব্যাচ মিলিয়ে বর্তমানে অধ্যয়নরত সর্বমোট শিক্ষার্থীদের সংখ্যা ১৬ হাজার ৯১৭ জন। এদের প্রত্যেককে আগামী ৬ মাসে ১৫০০ টাকা করে সম্পূরক শিক্ষাবৃত্তি দিলে তাহলে এর পরিমাণ দাড়ায় ১৫ কোটি ২২ লক্ষ ৫৩ হাজার টাকা। অর্থাৎ, প্রতিটি শিক্ষার্থী ৬ মাসে ৯ হাজার টাকা পাবে। এই টাকা সম্পূরক শিক্ষাবৃত্তি হিসেবে দিলে মেসভাড়াসহ অন্যান্য শিক্ষাসংকট দূর হবে।

সময় জার্নাল/

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।