বড়াইগ্রামে নারীর আত্মহত্যা ও বৃদ্ধের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

প্রকাশিতঃ ১০:১৬ অপরাহ্ণ, রবি, ১২ জুলাই ২০

নাটোর প্রতিনিধি : জেলার বড়াইগ্রামের বনপাড়া বাহিমালী গ্রামের জেনি বেবী কস্তা (৪০) নামে একজন খৃস্টান নারী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজ টাইমলাইনে মৃত্যুর স্ট্যাটাস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। শনিবার বিকালে নিজ বাড়ির শোবার ঘরের দরজা ভেঙ্গে পুলিশ ওই নারীর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করে। সে ওই গ্রামে মৃত আব্রাহাম কস্তার মেয়ে।

মেয়েটির নিকট আত্বীয়রা জানান, গত ১৬ বছর আগে স্বামীর সাথে ছাড়াছাড়ি হয়ে গেলে জেনি বেবী কস্তা আর বিয়ে করেনি। সে ঢাকায় একটি প্রাইভেট কোম্পানীতে চাকরি করতো। করোনা পরিস্থিতির কারণে গত তিন মাস যাবৎ সে গ্রামের বাড়িতে অবস্থান করছিলো। বাড়িতে ফিরে সে হতাশায় ভুগছিলো এবং ফেসবুকে আত্মহত্যা করবে এমন ইঙ্গিত দিয়ে নানাবিধ পোস্ট দিয়ে আসছিলেন।
সর্বশেষ শুক্রবার রাতে ফেসবুকে ২৬ টি নিজের ছবি পোস্ট দিয়ে স্টেটাস দেয় ‘আমি মরে গেলে তোরা এগুলো দেখিস’

বনপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ তৌহিদুল ইসলাম জানান, ওড়না দিয়ে ঘরের তীরের সাথে গলায় ফাঁস লাগিয়ে সে আত্মহত্যা করে।

অপরদিকে উপজেলার কায়েমকোলা গ্রামে হায়াত আলী নামে এক বৃদ্ধের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সে ওই গ্রামের ফাকিহ প্রামাণিকের ছেলে। নিহতের ছেলের অভিযোগ তার বাবাকে হত্যা করে গাছে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করা হবে বলে জানান ওসি দিলীপ কুমার দাস।

সময় জার্নাল/

লকডাউন পরিস্থিতিতে পাঠকদের অবস্থা, সমস্যায় পড়া মানুষদের কথা সরকার, প্রশাসন এবং সকল খবরাখবর আমাদের সব পাঠকের সামনে তুলে ধরতে আমরা মনোনীত লেখাগুলি প্রকাশ করছি। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের পাঠাতে ক্লিক করুন

স্থান, তারিখ ও কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই লিখে পাঠাবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।