বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২

জাপানের কাস্টমার সার্ভিস কেন বিশ্বসেরা

সোমবার, মে ২৩, ২০২২
জাপানের কাস্টমার সার্ভিস কেন বিশ্বসেরা

সৈয়দ জামান লিংকন (পানি গবেষক, টোকিও জাপান) :

আচ্ছা বলেনতো পৃথিবীতে ২০০ বছরের বেশি পুরনো কোম্পানি আছে এরকম দেশগুলোর শীর্ষে কারা?
টাইটেল দেখে উত্তর নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন। জ্বী আপনি যা ভাবছেন ঠিক তাই। পৃথিবীতে ২০০ বছরের পুরোনো কোম্পানি আছে ৫৫৮৬ টি (ব্যাংক অফ কোরিয়া ২০০৮), এর মধ্যে জাপানে আছে ৩১৫৬ টি (৫৬%), ১৫% জার্মানিতে এবং ৪% নেদারল্যান্ডে।

এই একটি তথ্য থেকেই বুঝা যায় কাস্টমার সার্ভিসে কেন পৃথিবীর সেরা দেশ জাপান। একটি কোম্পানি তখনই দীর্ঘ সময় ঠীকে থাকবে যখন গ্রাহক তার প্রডাক্টের গুনগত মান, সেবা এবং বিশ্বাসে পুরোপুরি সন্তুষ্ট থাকবে। জাপানের প্রডাক্টের গুনগত মান, সেবা এবং বিশ্বাস নিয়ে আমার জীবন থেকে কয়েকটি ছোট্ট উদাহরণ দেব।

কোয়ালিটি-
❶ জাপানে দেশ থেকে নতুন যারা আসে তাদেরকে জাপানীজ/বাংগালীরা পুরাতন নিত্যপ্রয়োজনীয় দিয়ে সহায়তা করে থাকে, আমিও কিছু পুরাতন জিনিস পেয়েছিলাম এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল টেবিল ফ্যান, রাইস কুকার। এ দুটো পুরাতন জিনিস আমি ২০ বছর ব্যবহার করেছি কোনরকম সমস্যা ছাড়াই। আমার বউ এক জাপানীজ মহিলার কাছ থেকে ৪০ বছরের পুরনো সেলাই মেশিন পেয়ে আরও ১০ বছর ব্যবহার করেছে। নষ্ট হয় না বলে গতবছর বিরক্ত হয়ে সেগুলো ফেলে দিলাম।

সার্ভিস-
❷ একসেট সোফা সাড়ে চার বছর ব্যবহারের পর বিভিন্ন জায়গায় রং উঠে গেল। দোকানে গিয়ে পরামর্শ চাইলাম এটা রিপেয়ার করব নাকি কাভার কিনব। সবকিছু শুনে সেলসম্যান বলল তুমি কতদিন আগে এই সোফা কিনেছ, আমি ঠিক মনে করতে পারছিলাম না, তখন সেলসম্যান আমার ফোন নাম্বার দিয়ে রেকর্ড খুঁজে দেখল আমি ৪.৫ বছর আগে কিনেছি এবং এই সোফা ৫ বছরের গ্যারান্টি ছিল। ফলাফল গ্যারান্টির বদৌলতে আমি আরেক সেট নতুন সোফা পেলাম এবং সেই নতুন সোফা ৩ বছর ব্যবহারের পর সমস্যা দেখা দেয়াতে আবারও নতুন একসেট। দ্বিতীয়বার পরিবর্তন করাতে আমি অবশ্য এখনও অস্বস্তি ফিল করি, মনে হচ্ছে আমার এতটা সার্ভিস নেয়া উচিত হয়নি।

আসলে বেশ কম দামে সোফাটি কিনেছিলাম এবং কমপিটেটিভ মুল্যের জন্য ওরা এই প্রডাক্টগুলো বিদেশে তৈরি করে এবং গুনগত মান সবসময় ঠিক রাখতে পারেনা তারপরও তারা সার্ভিস দিয়ে গ্রাহকের মন জয় করার চেষ্টা করে থাকে।


ছবি :  ১০০ বছরের পুরনো একটি রেস্টুরেন্টে (২০২০ সাল ইবারাকি সিটি) মধ্যাহ্নভোজ। 


রিলায়েবিলিটি-
❸ ২০০৮ সালের কথা, পরিবারের সদস্য সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় কম বাজেটে বড় সাইজের ফ্রিজ কিনতে দোকানে গেলাম। সবচেয়ে কম দামের ফ্রিজটি ছিল এলজি ব্রান্ডের। আমার বাজেট, প্রয়োজনীয়তা সব শুনে সেলসম্যান বলেছিল, তুমি এটা নিও না, কারন এলজির আফটার সার্ভিস ভালো নয় বরং তুমি আগামী সপ্তাহে ভোরবেলা দোকানে এসো, সেদিন কিছু জাপানীজ ব্রান্ডের ফ্রিজ ডিসকাউন্টেড দামে বিক্রি হবে। আমি কথামতো ভোরবেলা লাইনে দাঁড়িয়ে একটি জাপানীজ ব্রান্ডের ফ্রিজ কিনেছিলাম।

বিশ্বাস-
❹ জাপানে খুব সহজেই বাড়ি গাড়ি কেনা যায়। এটা নিয়ে বিস্তারিত আরেকদিন লিখব। জাপানে বাড়ি সাধারণত ব্যাংক লোন দিয়ে কেনা হয়ে থাকে। আমি ১০০% ব্যাংক লোনে কিনেছি ২০১৩ সালে, অনেকটা এরকম চাইলাম, দেখলাম পছন্দ হলো এবং কিনে ফেললাম... বেশ সহজ একটা বিষয়। নগদ টাকা না হয় লাগল না তবে বাড়ি কিনে ধোঁকা খাওয়ার সম্ভাবনা কতটুকু? উত্তর অলমোস্ট জিরো। নকল দলিল, ওয়ারিসদারদের ঝামেলা, জবর দখল, শত্রু সম্পত্তি, বকেয়া ট্যাক্স, দলিলের ভেতর মারপ্যাঁচ... এসব কিছুই নেই।
আমি যেহেতু জাপানীজ ভাষায় পারদর্শী নয় তাই দলিলের ভেতর কি লেখা আছে সেটা বুঝার সাধ্য আমার ছিল না। দলিল, ব্যাংক লোনের কয়েক ডজন কাগজে সাইন করতে আমার একবারও মনে হয়নি আমাকে কোথাও ধোঁকা দেয়া হতে পারে।

জাপানে খারাপ সার্ভিসেরও অনেক উদাহরণ আছে তবে আমার বদঅভ্যাস হলো খারাপগুলো আমি সহজেই ভুলে যাই, ভালোগুলো মনে রাখি।


লিংকন
টোকিও, মে ২৩, ২০২১


Somoy Journal is new coming online based newspaper in Bangladesh. It's growing as a most reading and popular Bangladeshi and Bengali website in the world.

যোগাযোগ:
এহসান টাওয়ার, লেন-১৬/১৭, পূর্বাচল রোড, উত্তর বাড্ডা, ঢাকা-১২১২, বাংলাদেশ
কর্পোরেট অফিস: ২২৯/ক, প্রগতি সরণি, কুড়িল, ঢাকা-১২২৯
ইমেইল: somoyjournal@gmail.com
নিউজরুম ই-মেইল : sjnewsdesk@gmail.com

কপিরাইট স্বত্ব ২০১৯-২০২২ সময় জার্নাল