মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২

বিএনপির আন্দোলনের সর্বদলীয় যুগপৎ’ রূপ দেওয়ার চেষ্টা

সোমবার, জুন ২০, ২০২২
বিএনপির আন্দোলনের সর্বদলীয় যুগপৎ’ রূপ দেওয়ার চেষ্টা

সময় জার্নাল ডেস্ক: আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে দাবি আদায়ের লক্ষ্যে আন্দোলনে যাওয়ার রূপরেখা তৈরি করছে বিএনপি। সরকারবিরোধী এ আন্দোলনকে ‘সর্বদলীয় যুগপৎ’ রূপ দেওয়ার চেষ্টা থেকে ১১টি বিরোধী দলের সঙ্গেও আলোচনা করেছে তারা। প্রথম ধাপে আরও কয়েকটি দলের সঙ্গে মতবিনিময় করবে বিএনপি। এরপর দ্বিতীয় ধাপে এই দলগুলোর সঙ্গে লিখিত বক্তব্যের ভিত্তিতে আবারও বৈঠক হবে। সব মিলিয়ে আসন্ন কোরবানির ঈদের পরই পুরো প্রক্রিয়াটি কার্যকর করবে বিএনপি।

বিএনপির সঙ্গে ইতোমধ্যে মতবিনিময় হয়েছে—এমন দলগুলোর শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে আলাপকালে জানা গেছে, যুগপৎ কর্মসূচি গড়ে তোলার লক্ষ্যে চলতি জুনেই রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে মতবিনিময় শেষ করার কথা বিএনপির। প্রথম ধাপের আলোচনায় উভয় পক্ষ নিজেদের চিন্তাভাবনা ও ভবিষ্যৎ কর্মসূচি নিয়ে চিন্তার আদান-প্রদান করলেও দ্বিতীয় ধাপে প্রক্রিয়াটি লিখিত রূপ দেওয়ার পক্ষে মত এসেছে ১১টি সভায়।
বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক বলেছেন, ‘বিএনপির সঙ্গে আমাদের প্রথম দফায় আলোচনা হয়েছে। দ্বিতীয় দফায় একটি লিখিত রূপের ভিত্তিতে আলোচনা হবে। প্রথম ধাপের আলোচনা চলতি জুনে শেষ হওয়ার কথা।’

একাধিক দলের নেতারা জানান, বিএনপির পক্ষ থেকে একটি লিখিত রূপরেখা তৈরি করা হবে। কী ভিত্তিতে অপরাপর বিরোধী দলগুলোর সঙ্গে যুগপৎ আন্দোলন গড়ে তোলা হবে, সে বিষয়ে তাতে বিএনপির বক্তব্য থাকবে। প্রাথমিক পর্বে দলগুলোর সঙ্গে অনুষ্ঠিত আলোচনায় উঠে আসা মতামতগুলো সমন্বয় করা হবে এর সঙ্গে।
একটি দলের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘যুগপৎ আন্দোলনের রাজনৈতিক বক্তব্য কি হবে, কি কি অঙ্গীকার থাকবে এসব কিছু থাকবে বিএনপির প্রস্তাবে। এটার ভিত্তিতেই দ্বিতীয় ধাপের আলোচনা শুরু হবে। সেক্ষেত্রে প্রসেস ঈদের পর যাবে, এটাই স্বাভাবিক।’

বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং সদস্য শায়রুল কবির খান সময় জার্নাল কে, ইতোমধ্যে ১১টি দলের সঙ্গে বিএনপির মতবিনিময় অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার (২০ জুন) হচ্ছে ১২তম দলের সঙ্গে। যে ১১টি দলের সঙ্গে হয়েছে; সেগুলো হচ্ছে—গত ২৪ মে নাগরিক ঐক্য, ২৭ মে লেবার পার্টি, ৩১ মে গণ-সংহতি আন্দোলন,১ জুন বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি, ২ জুন কল্যাণ পার্টি, ৭ জুন বাংলাদেশ মুসলিম লীগ, ৮ জুন জোটের শরিক জাতীয় পার্টি (কাজী জাফর), ৯ জুন জাগপা, ১২ জুন ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-ন্যাপ ভাসানী, ১৬ জুন অলি আহমদের এলডিপি এবং ১৮ জুন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ (একাংশ)।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির একাধিক সদস্য জানান, ২০ দলীয় জোটের বাকি শরিক দল আ স ম রবের জেএসডি, রেজা কিবরিয়ার গণ অধিকার পরিষদের সঙ্গে কথা বলবে বিএনপি। এছাড়া আরও কয়েকটি দলের সঙ্গে আলোচনা করার চেষ্টা থাকলেও বিএনপি এখনও তাদের তরফে নিশ্চয়তা পায়নি। সেজন্য প্রথম ধাপের আলোচনা শেষ করতে আরও কিছু দিন সময় নেবেন দলটির নেতারা। আ স ম রব চিকিৎসার কারণে এখন ব্যাংককে। তিনি ফিরে এলে আলোচনা করবে বিএনপি।

গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি বলেন, ‘বিএনপির সঙ্গে আমাদের মতবিনিময় হয়েছে। প্রথম ধাপের আলোচনা শেষে দ্বিতীয় ধাপের আলোচনা হবে বলে তারা জানিয়েছে। আমরা সাত দলীয় মঞ্চের রূপরেখা চূড়ান্ত করছি। আগামী ২৬ জুনের বৈঠক হওয়ার পর বিষয়টি আনুষ্ঠানিকতা পাবে।’নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ‘আমাদের মধ্যে আলোচনা হয়েছে। তবে কোনও রেজাল্ট হয়নি। বিএনপি দ্বিতীয় ধাপে আলোচনা করবে বলেছে। তারা বলেছে, সবার সঙ্গে আলোচনার ভিত্তিতে বোঝাপড়া স্পষ্ট হলে দ্বিতীয় ধাপের আলোচনা করবে।’

আরেকটি দলের নেতা বলেন, ‘বিএনপিকে একটু স্লো মনে হচ্ছে। তারা ধীরে যাচ্ছেন। তাদের শরিকদের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক আলাপ করছে।’সাত দলের প্রস্তাবিত গণতন্ত্র মঞ্চের একাধিক সূত্র বলছে, বিএনপির পক্ষ থেকে আগামী দিনে শাসনতান্ত্রিক পরিবর্তনের বিষয়ে যেসব আলোচনা উঠানো হয়েছে, এরমধ্যে গুরুত্বপূর্ণ সত্তর অনুচ্ছেদ। বিশেষত প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতার ভারসাম্য আনা, রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতার ভারসাম্য নিশ্চিত করার বিষয়টি অগ্রাধিকারপ্রাপ্ত। এ নিয়ে বিএনপির ওপর রাজনৈতিক চাপ অব্যাহত রাখতে সাত দলীয় মঞ্চের শরিকরাও আন্তরিক।

সাত দলের একটি দলের প্রধান মনে করেন, বিএনপি এখনও ৭০ অনুচ্ছেদ সংশোধন নিয়ে আন্তরিক নয়। অনেক দলই মনে করে, বর্তমানে স্বৈরতান্ত্রিক ক্ষমতার কাঠামোর উৎস হচ্ছে ৭০ অনুচ্ছেদ। তবে কিছু বিষয়ে তো ইতোমধ্যে ঐকমত্য এসেছে। এগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য, আওয়ামী লীগ সরকারের পদত্যাগ, নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন, নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন ইত্যাদি। তবে নির্বাচনকালীন সরকারের মেয়াদ দিয়ে এখনও মতৈক্যে আসা সম্ভব হয়নি।বিএনপির স্থায়ী কমিটির সূত্র জানিয়েছে, সোমবার রাতে স্থায়ী কমিটির বৈঠক রয়েছে। সূত্রের দাবি, বৈঠকে চলমান বন্যা, খালেদা জিয়ার চিকিৎসা ও স্বাস্থ্য পরিস্থিতি, বিরোধী দলগুলোর সঙ্গে মতবিনিময়ের প্রসঙ্গগুলো আলোচনায় উঠতে পারে।

জানতে চাইলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমরা মতবিনিময়ের প্রথম ধাপের কাজ এগিয়ে নিচ্ছি। দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর মতবিনিময় করছেন। আরও অনেক দলের সঙ্গে মতবিনিময় হবে। তবে, এই মুহূর্তে বিএনপি মনে করে, দেশের বন্যার পরিস্থিতির দিকে পূর্ণ মনোনিবেশ দরকার। আজকে আমাদের বৈঠকেও এ বিষয়টি প্রাধান্য পাবে।’

এসএম 


Somoy Journal is new coming online based newspaper in Bangladesh. It's growing as a most reading and popular Bangladeshi and Bengali website in the world.

যোগাযোগ:
এহসান টাওয়ার, লেন-১৬/১৭, পূর্বাচল রোড, উত্তর বাড্ডা, ঢাকা-১২১২, বাংলাদেশ
কর্পোরেট অফিস: ২২৯/ক, প্রগতি সরণি, কুড়িল, ঢাকা-১২২৯
ইমেইল: somoyjournal@gmail.com
নিউজরুম ই-মেইল : sjnewsdesk@gmail.com

কপিরাইট স্বত্ব ২০১৯-২০২২ সময় জার্নাল