সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২

বিদ্যুতের সামান্য অসুবিধাকে অনেকে ইস্যু বানাচ্ছে: পরিকল্পনামন্ত্রী

রোববার, আগস্ট ২৮, ২০২২
বিদ্যুতের সামান্য অসুবিধাকে অনেকে ইস্যু বানাচ্ছে: পরিকল্পনামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিনিধি: দেশে চলমান বিদ্যুৎ সংকটে মানুষের ‘সামান্য অসুবিধাকে অনেকে ইস্যু বানাতে চায়’ বলে মন্তব্য করেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

তিনি বলেছেন, এদেশে আজীবন বিদ্যুৎ ছিল না। বিদ্যুৎ আওয়ামী লীগ সরকার দিয়েছে। তবে বর্তমানে মানুষের সামান্য একটু অসুবিধা হচ্ছে। এটাকে কেউ কেউ ইস্যু বানাতে চায়। গ্রামের মানুষের সঙ্গে আমার নিয়মিত সাক্ষাৎ হয়। তারা দু-এক ঘণ্টা বিদ্যুতের কষ্ট সহ্য করছেন। তবে এ সমস্যা বেশিদিন থাকবে না।

রোববার (২৮ আগস্ট) রাজধানীর গুলশানে হোটেল লেকশোরে ‘দ্যা রিচার্স ফাইন্ডিংস অব দ্যা লেবার মার্কেট স্ট্যাডিজ ফর স্কিল অ্যান্ড ইম্পলয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রাম’ শীর্ষক কর্মশালায় তিনি এসব কথা বলেন।

মেগা প্রকল্পগুলোতে বরাদ্দ কমবে কি না, এমন প্রশ্নে এম এ মান্নান বলেন, চলমান মেগা প্রকল্পে টাকা না দিয়ে ফেলে রাখা ঠিক হবে না। তবে যেগুলো ড্রয়িং মুডে আছে, চিন্তা-চেতনায় আছে, নকশা বা পরিকল্পনার পর্যায়ে আছে সেগুলোর জন্য হয়তো আরও কিছু সময় নেবো।

তিনি বলেন, আমরা শুধু খাতা নিয়ে কাজ করি না, জনগণের মনের কথাও শুনি। পদ্মা সেতুতে মানুষ ছবি তোলে, এটা দারুণ একটা উপহার। মেট্রোরেলের জন্য মানুষ ব্যাকুল হয়ে আছে, এগুলোতে টাকা বরাদ্দ দিতেই হবে।

দেশের উন্নয়ন প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, গ্রামের মানুষ সুশাসন বোঝে না, উন্নয়ন বোঝে। গ্রামের মানুষের সঙ্গে যখন কথা বলি দেখি তারা পানি চায়, বিদ্যুৎ চায়, ঘর চায়, খাবার চায়, ভালো মতো থাকতে চায়। সুশাসন বলতে তারা সামাজিক নিরাপত্তা চায়।

প্রাণ-আরএফএল প্রসঙ্গে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ২০২২ সালে আমি রংপুরে প্রাণ-আরএফএল-এর ফ্যাক্টরি ভিজিট করেছিলাম। আমজাদ সাহেবের (আমজাদ খান চৌধুরীর) সঙ্গে ভালো সম্পর্ক ছিল। প্রাণ বাংলাদেশে সব কিছুতেই ভালো কাজ করছে।

বাংলাদেশ উন্নয়ন গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (বিআইডিএস) মহাপরিচালক (ডিজি) বিনায়ক সেনের সভাপতিত্বে কর্মশালায় জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান (সচিব) নাসরিন আফরোজ, পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য (সচিব) ড. মোহাম্মদ ইমদাদ উল্লাহ মিয়ান ও প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের পরিচালক (করপোরেট-ফাইনান্স) উজমা চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সময় জার্নাল/এলআর


Somoy Journal is new coming online based newspaper in Bangladesh. It's growing as a most reading and popular Bangladeshi and Bengali website in the world.

যোগাযোগ:
এহসান টাওয়ার, লেন-১৬/১৭, পূর্বাচল রোড, উত্তর বাড্ডা, ঢাকা-১২১২, বাংলাদেশ
কর্পোরেট অফিস: ২২৯/ক, প্রগতি সরণি, কুড়িল, ঢাকা-১২২৯
ইমেইল: somoyjournal@gmail.com
নিউজরুম ই-মেইল : sjnewsdesk@gmail.com

কপিরাইট স্বত্ব ২০১৯-২০২২ সময় জার্নাল