বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২

আজ, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২তম জন্মদিন ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের

রোববার, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২২
আজ, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২তম জন্মদিন ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের


সময় জার্নাল ডেস্ক :


বাংলা বর্ণের সঙ্গে মানুষের পরিচয় হয়েছে এই মানুষটির হাত ধরেই। ব্রাহ্মণ সমাজে এই মানুষটি থাকার কারণেই বিধবা বিবাহতে সাহস দেখিয়েছিল বাঙালি। আজ, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২তম জন্মদিন ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের । বাংলা সাহিত্যের শাখা-প্রশাখায় পরিবর্তনের ঝর তুলেছিলেন তিনি।

১৮২০-র আজকের দিনে অবিভক্ত ভারতের মেদিনীপুরের বীরসিংহ গ্রামে জন্মগ্রহণ করেছিলেন ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর। পিতা ঠাকুরদাস বন্দ্যোপাধ্যায়, মাতা ভগবতী দেবী। ঊনবিংশ শতকের একজন বিশিষ্ট বাঙালি শিক্ষাবিদ, সমাজ সংস্কারক ও গদ্যকার বিদ্যাসাগর। চার বছর নয় মাস বয়সে ঠাকুরদাস বালক ঈশ্বরচন্দ্রকে গ্রামের সনাতন বিশ্বাসের পাঠশালায় ভর্তি করান। ১৮২৮-এর নভেম্বর মাসে পাঠশালার শিক্ষা শেষ করে উচ্চ শিক্ষা লাভের জন্য পিতার সঙ্গে কলকাতায় আসেন বিদ্যাসাগর। অল্প বয়স থেকেই পড়াশুনায় ভালো ছিলেন তিনি। ১৮২৯-এর ১ জুন কলকাতা গভর্নমেন্ট সংস্কৃত কলেজে ব্যাকরণের তৃতীয় শ্রেণীতে ভর্তি হন তিনি। আর তারপরেই তাঁর জীবনের গতি পাল্টে যায়। শিক্ষকতা দিয়ে নিজের জীবন শুরু করেছিলেন।

কলেজে ব্যাকরণ পড়ার সময় ইংরেজি শ্রেণীতেও ভর্তি হয়েছিলেন তিনি। ১৮৩১-এর মার্চে বার্ষিক পরীক্ষায় কৃতিত্বের জন্য মাসিক ৫ টাকা হারে বৃত্তি এবং ‘আউট স্টুডেন্ট’ হিসেবে একটি ব্যাকরণ গ্রন্থ ও ৮ টাকা পারিতোষিক পান। ১৮৩৩-এ ‘পে স্টুডেন্ট’ হিসেবে ২ টাকা পেয়েছিলেন তিনি। এইভাবে তাঁর পথ চলা শুরু হয়। পরবর্তীতে ক্ষীরপাই নিবাসী শত্রুঘ্ন ভট্টাচার্যের কন্যা দীনময়ী দেবীর সঙ্গে তাঁর বিবাহ হয়। এদিকে দর্শন আর অর্থশাস্ত্রের উপর জোর দেন বিদ্যাসাগর। বাল্যবিবাহ রোধ করে নারী শিক্ষায় গুরুত্ব দেওয়ার সঙ্গে সতীদাহ প্রথা বন্ধ করে বিধবা বিবাহ শুরু করেন।

স্ত্রী শিক্ষার প্রচলনের সঙ্গে বহুবিবাহ ও বাল্যবিবাহের মত সামাজিক অভিশাপ দূরীকরণে অক্লান্ত সংগ্রাম করেছেন বিদ্যাসাগর। বাংলার নবজাগরণের এই পুরোধা ব্যক্তিত্ব দেশের আপামোর জনসাধারণের কাছে পরিচিত ‘দয়ার সাগর’ নামে। বাঙালি সমাজে আজও এক স্মরণীয় ব্যক্তিত্ব তিনি। তিনি শিশুপাঠ্য বর্ণপরিচয় সহ একাধিক পাঠ্যপুস্তক ও সংস্কৃত ব্যাকরণ গ্রন্থ রচনা করেছেন। তাঁকে বাংলা গদ্যের প্রথম শিল্পী বলে অভিহিত করেছেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। মাইকেল মধুসূদন দত্ত তাঁর মধ্যে দেখতে পেয়েছিলেন প্রাচীন ঋষির প্রজ্ঞা। আজ এই বিশিষ্ট ব্যক্তিত্বের জন্মদিনে, তাঁকে প্রণাম।



এস.এম



Somoy Journal is new coming online based newspaper in Bangladesh. It's growing as a most reading and popular Bangladeshi and Bengali website in the world.

যোগাযোগ:
এহসান টাওয়ার, লেন-১৬/১৭, পূর্বাচল রোড, উত্তর বাড্ডা, ঢাকা-১২১২, বাংলাদেশ
কর্পোরেট অফিস: ২২৯/ক, প্রগতি সরণি, কুড়িল, ঢাকা-১২২৯
ইমেইল: somoyjournal@gmail.com
নিউজরুম ই-মেইল : sjnewsdesk@gmail.com

কপিরাইট স্বত্ব ২০১৯-২০২২ সময় জার্নাল