বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২

হজে বেঁচে যাওয়া অর্থ ফেরত পাবেন হাজিরা

বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২২
হজে বেঁচে যাওয়া অর্থ ফেরত পাবেন হাজিরা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক:

চলতি বছর হজে বেঁচে যাওয়া অর্থ ফেরত পাবেন সরকারি ব্যবস্থাপনায় যাওয়া হাজিরা। সৌদি আরবে বাড়ি ও হোটেল ভাড়ায় ব্যয় না হওয়া অর্থ সরকারি ব্যবস্থাপনায় ফেরত দেওয়া হবে।

ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, সব প্রক্রিয়া শেষ করে আগামী দুই-এক সপ্তাহের মধ্যে হাজিদের টাকা দেওয়া শুরু হবে। এজন্য বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) হজের ব্যয় না হওয়া ৯ কোটি ৪০ লাখ টাকা মন্ত্রণালয় থেকে হজ অফিস পরিচালকের অনুকূলে পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি টাকা ফেরত দেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ জানানো হয়েছে।

মন্ত্রণালয় সূত্রে আরও জানা গেছে, সরকারি ব্যবস্থাপনার তিন হাজার ৭০০ এর বেশি হাজিকে এ টাকা দেওয়া হবে। প্যাকেজ-১ এর হাজিরা জনপ্রতি ৪৭ হাজার ৭২৬ টাকা ও প্যাকেজ-২ এর হাজিরা ১০ হাজার ২৯৩ টাকা করে ফেরত পাবেন।

২০২২ সালে সরকারি ব্যবস্থাপনায় যাওয়া প্যাকেজভিত্তিক নিবন্ধিত হাজিদের মধ্যে এ অর্থ আর্থিক বিধি-বিধান অনুসরণ করে চেকের মাধ্যমে বিতরণ করার অনুরোধ জানায় ধর্ম মন্ত্রণালয়। তাছাড়া বিতরণ শেষে সমন্বয় প্রতিবেদন ধর্ম মন্ত্রণালয়ে পাঠানোর জন্য হজ পরিচালককে অনুরোধ করা হয়েছে।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা নাম না প্রকাশের শর্তে বলেন, সময় কম থাকায় সৌদি আরবে বিভিন্ন খরচ চূড়ান্ত হওয়ার আগেই সেগুলোর আনুমানিক খরচ ধরে হজ প্যাকেজ চূড়ান্ত হয়েছিল। এর মধ্যে বাড়ি ও হোটেল ভাড়ার খরচ বেঁচে গেছে। এবার হজে সৌদি সরকার সব দেশের কোটা কমিয়ে দেওয়ায় হোটেল ও বাড়ি সহজলভ্য ছিল, ভাড়াও ছিল কম।

তিনি আরও বলেন, প্রতি হজযাত্রীকে চেকের মাধ্যমে টাকা ফেরত দেওয়া হবে। যে মোবাইল ফোন নম্বর দিয়ে প্রাক-নিবন্ধন করা হয়েছিল, ওই নম্বর যাচাই করে চেক দেওয়া হবে।

বেসরকারিভাবে এজেন্সিগুলোর মাধ্যমে হজে যাওয়া ব্যক্তিদের খরচ ফেরতের বিষয়ে কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হবে কী না জানতে চাইলে ওই কর্মকর্তা বলেন, হজ এজেন্সিস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (হাব) নেতাদের ডাকা হয়েছিল।

তারা বলেছেন, সরকার লাভ করে না, তাই তারা টাকা ফেরত দিতে পারে। কিন্তু এজেন্সিগুলো তো মুনাফা লাভ করে। এছাড়া হিসাব-নিকাশের কাজও শেষ, তাই হাজিদের টাকা ফেরত দেওয়ার কোনো সুযোগ তাদের নেই।

চলতি বছরের ৮ জুলাই সৌদি আরবে হজ অনুষ্ঠিত হয়। ৫ জুন থেকে ৫ জুলাই পর্যন্ত ১৬৫টি ফ্লাইটে বাংলাদেশ থেকে সৌদি আরবে যান ৬০ হাজার ১৪৬ জন হজযাত্রী (ব্যবস্থাপনা সদস্যসহ)। হজ শেষে দেশে ফেরার ফ্লাইট শেষ হয় গত ৮ আগস্ট।

এবার সরকারিভাবে হজে যেতে প্যাকেজ-১ এ ৫ লাখ ৮৬ হাজার ৩৪০ ও প্যাকেজ-২ এ ৫ লাখ ২১ হাজার ১৫০ টাকা খরচ হয়েছে। বেসরকারি এজেন্সিগুলোর সাধারণ প্যাকেজে হজের খরচ ধরা হয়েছিল ৫ লাখ ২২ হাজার ৭৪৪ টাকা।

এমআই


Somoy Journal is new coming online based newspaper in Bangladesh. It's growing as a most reading and popular Bangladeshi and Bengali website in the world.

যোগাযোগ:
এহসান টাওয়ার, লেন-১৬/১৭, পূর্বাচল রোড, উত্তর বাড্ডা, ঢাকা-১২১২, বাংলাদেশ
কর্পোরেট অফিস: ২২৯/ক, প্রগতি সরণি, কুড়িল, ঢাকা-১২২৯
ইমেইল: somoyjournal@gmail.com
নিউজরুম ই-মেইল : sjnewsdesk@gmail.com

কপিরাইট স্বত্ব ২০১৯-২০২২ সময় জার্নাল