শনিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২২

সিডনিতে অভিষেকের দিনটা ভুলে যেতে চাইবে বাংলাদেশ

বুধবার, অক্টোবর ২৬, ২০২২
সিডনিতে অভিষেকের দিনটা ভুলে যেতে চাইবে বাংলাদেশ

স্পোর্টস ডেস্ক:

বাংলাদেশের লজ্জাজনক হার।  প্রথমবার এসএসজিতে খেলার অভিজ্ঞতাটা একেবারেই সুখকর হলো না টিম টাইগার্সের। দক্ষিণ আফ্রিকার দেয়া ২০৬ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে অর্ধেক রানও তুলতে পারেনি বাংলাদেশ স্কোরবোর্ডে। ১০১ রানেই থামে বাংলাদেশের ইনিংস। ফলে ১০৪ রানের হার মেনে নিতে হয় বাংলাদেশকে।

নিজের খেলা প্রথম ২ বলে জোড়া ছক্কা হাকিয়ে স্বপ্নের সীমানাটা বাড়িয়ে দিয়েছিলেন সৌম্য সরকার। তবে এনরিখ নর্টজের তৃতীয় ওভারেই সেই স্বপ্নের সলিল সমাধি হয়ে যায়। সেই ওভারের প্রথম বলেই সৌম্য সরকার ফিরেন ৬ বলে ১৫ রানে, দুই বল পরেই নাজমুল শান্ত হেঁটেছেন একই পথে। মাত্র ১ রানে নর্টজে ২ উইকেট নেয়ায় ২০৬ রানের বিশাল লক্ষ্য তাড়ায় শুরুতেই বাংলাদেশ পথ হারায়।

বরাবরের স্বপ্নদ্রষ্টা সাকিব আল হাসানও স্বপ্ন দেখাতে পারেননি, নর্টজের তৃতীয় শিকার হয়ে ফিরেছেন মাত্র ৪ বলে ১ রান করে। সমান বলে সমান রান করে রাবাদার শিকার হয়ে আফিফও ফিরেছে সাজঘরে। পাওয়ার প্লেতে স্কোরবোর্ডে ৪৭ রান ভদ্রস্থ দেখালেও ততক্ষণে বাংলাদেশ হারিয়ে ফেলেছে ৪ উইকেট।

এর পরের ৬ ওভারে মাত্র ২৯ রানেই ৬ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। দেখে মনে হতেই পারে প্রতিযোগিতা হচ্ছে তাদের মাঝে, কে কার আগে ফিরতে পারে সাজঘরে। লিটন-মিরাজ একটুখানি বিশ্রাম নিয়ে ফের আগের ধারা অব্যাহত রাখেন মেহেদী মিরাজ। ১৩ বলে ১১ করে ফিরেন এই অলরাউন্ডার। আগের ম্যাচে দারুণ ব্যাট করা মোসাদ্দেক এই ম্যাচে ফিরেছেন কোনো রান না করেই। ৩ বলে ০ করে কেশভ মহারাজের শিকার তিনি। আর আরো একবার ব্যর্থ উইকেট কিপার ব্যাটার নুরুল হাসান সোহান। শেষ ৪ ম্যাচে ৩৪ বলে মাত্র ১৯ রান করেছেন সোহান।

১৪ তম ওভারে দলীয় সর্বোচ্চ ৩১ বলে ৩৪ রান করে ফিরেন লিটন কুমার দাসও। লিটন ফিরে যাবার পর হাসান মাহমুদও ফিরে যান রান আউটের ফাঁদে পড়ে। তবে শেষ উইকেট জুটিতে ১২ রান সংগ্রহ করেন তাসকিন-মোস্তাফিজ। ১৬.৩ ওভারে তাসকিন ফিরে গেলে ১০১ রানেই থেমে যায় বাংলাদেশের ইনিংস। মাত্র ১০ রানে ৪ উইকেট নিয়েছেন এনরিখ নর্টজে।

এর মাঝে দ্বিতীয় উইকেট জুটি কুইন্টন ডি ককের সাথে ৮৫ বলে ১৬৮ রানের অনবদ্য এক জুটি গড়ে তুলেন রাইলি রুশো। অবশেষে আফিফ হোসেনের বলে জুটি ভেঙে ডি কক যখন ফিরেন, ৩৮ বলে ৬৩ রান তখন নামের পাশে। এদিকে মাত্র ৫৩ বলে শতক স্পর্শ করেন রাইলি রুশো।

মাঝে ট্রিস্টান স্টাবসকেও ফিরিয়েছিলেন সাকিব। পরে শেষ ওভারে এইডেন মার্করামকে ফেরান হাসান মাহমুদ। ততক্ষণে অবশ্য দলের রান ২০০ পাড়ি দিয়েছে। তবে শেষ ওভারে হাসান মাহমুদের দারুণ বোলিংয়ে ৫ উইকেট হারিয়ে ২০৫ রানেই থামে দক্ষিণ আফ্রিকার ইনিংস।

সময় জার্নাল/এলআর


Somoy Journal is new coming online based newspaper in Bangladesh. It's growing as a most reading and popular Bangladeshi and Bengali website in the world.

যোগাযোগ:
এহসান টাওয়ার, লেন-১৬/১৭, পূর্বাচল রোড, উত্তর বাড্ডা, ঢাকা-১২১২, বাংলাদেশ
কর্পোরেট অফিস: ২২৯/ক, প্রগতি সরণি, কুড়িল, ঢাকা-১২২৯
ইমেইল: somoyjournal@gmail.com
নিউজরুম ই-মেইল : sjnewsdesk@gmail.com

কপিরাইট স্বত্ব ২০১৯-২০২২ সময় জার্নাল