শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

ফেইসবুক এলগরিদম আপডেট (২০২১) ও অর্গানিক রিচ

বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২৯, ২০২১
ফেইসবুক এলগরিদম  আপডেট (২০২১) ও অর্গানিক রিচ

জয়ন্ত চৌধুরী :
শুভ নববর্ষ, আশা করি সকলেই ভালো আছেন। বর্তমানে বাংলাদেশে প্রতিনিয়ত তৈরী হচ্ছে নতুন নতুন অনলাইন ব্যবসা মাধ্যম। যার প্রায় প্রত্যেকটি প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে ফেইসবুকের সাথে যুক্ত। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই দেখা যায় আমাদের দেশের ফেইসবুক নির্ভর ব্যবসা গুলো ফেইসবুকের পেইড রিচের পাশাপাশি অর্গানিক রিচের উপর অনেকটা আশাবাদী থাকেন। কিন্তু সাম্প্রতিক জানুয়ারী ২০২১ থেকে দেশের অধিকাংশ পেইজগুলোতে এই রিচের হার অনেকটাই কমে দাড়িয়েছে। যার অন্যতম কারণ হচ্ছে ফেইসবুক এর এলগরিদম পরিবর্তন। প্রত্যাশা রাখছি এই আমার উপস্থাপিত বিষয়গুলো আপনার অনেক প্রশ্নের না পাওয়া উওর প্রদাণ করবে এবং ফেইসবুকের কাজ করার পদ্ধতি সম্পর্কে একটি ধারণা দিবে।

চলুন শুরু করা যাক......

এলগরিদম কি?

উত্তরঃ এলরিদম হচ্ছে অনেকগুলো নির্দিষ্ট ক্রিয়াকলাপের ক্রম পরিচালনার উপর ভিত্তি করে সমস্যা সমাধানের জন্য একটি পদ্ধতি বা সূত্র।
এখন আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে এটার কেন দরকার। চলুন জেনে নেওয়া যাক।

প্রধানত এলরিদম তৈরী করা হয় অনেকগুলো সমস্যা সমাধানের জন্য। উদাহরণ সরুপ, আপনার নিত্য ব্যবহার্য দুটো উদাহরণ দিচ্ছি।
১। ধরুন আপনি গুগলে কোন কিছু সার্চ করলেন, এরপর অপেক্ষা করলেন আপনার সার্চের উপর ভিত্তি করে কাক্ষিত ফলাফলের জন্য। কিচ্ছুক্ষন পর আপনি যা খুজচ্ছিলেন তা পেয়ে গেলেন। এবার একটু ভাবুন গুগলে সার্চ দিয়ে আপনি তো এই তথ্য গুলো নাও খুজে পেতে পারতেন, কারণ গুগলের কাছে তো অনেক ডাটা, সেগুলোর মধ্যে থেকে সে আপনাকে যেকোন তথ্য দেখাতে পারতো। তা না করে গুগল আপনাকে তাই খুজে এনে দিলো যে বিষয়টি আপনি খুজচ্ছেন। আর এই কাজটি গুগল অনেকটাই নিখুতভাবে করলো তাদের এলগরিদমের কল্যাণে। তারা তাদের এলগরিদমে অনেক গুলো শর্ত যুক্ত করে দিয়েছেন, যার ফলে সেই শর্ত মেনে গুগল সহজেই আপনাকে আপনার তথ্য প্রদর্শন করছে। আর গুগলের সঠিক তথ্য গ্রাহকের কাছে তুলে ধরার কাজটিও সমাধান হয়ে যাচ্ছে।

২। এবার আসি আপনার নিত্যদিনের সঙ্গী ফেইসবুককে নিয়ে। আমাদের ফেইসবুক ব্যবহারের সময় আমরা একাধারে ফ্রেন্ড, গ্রুপ, ইভেন্ট, পেইজ, গেইম, ভিডিও সহ অনেকগুলো বিষয়ের সাথে যুক্ত হই। কিন্তু আমরা সর্বদাই এই সবগুলোর সম্পর্কে একসাথে আপডেট পেতে চাই না। কারণ সবার আপডেট নিতে গেলে দিনের সমাপ্তি হবে কিন্তু আপডেটের শেষ হবে না। আমরা চাই আমাদের সামনে সেই সব বিষয়গুলো প্রদর্শিত হোক যা আমাদের ভালো লাগে। যেমন, আমার পচ্ছন্দের বন্ধুদের পোস্ট, গ্রুপের আপডেট, পেজের আপডেট ইত্যাদি। এবং একটু লক্ষ্য করলে দেখবেন ফেইসবুক আপনার কাছে ঠিক সেই জিনিসগুলো তুলে ধরে। একবার ভাবুন যদি এমনটা না হতো তবে আপনার পুরো দিন চলে যেত একটা একটা করে আপডেট খুজে বার করতে। কিন্তু ফেইসবুক তাদের এলগরিদমে অনেকগুলো শর্ত যুক্ত করে দিয়ে সহজেই আপনার পচ্ছন্দের বিষয়বস্তু আপনার সামনে তুলে ধরছে। যা সম্ভব হয়েছে এলগরিদমের জন্য।

আশা করছি আপনার কাছে এলগরিদমের ব্যাপারটা পুরোপুরি পরিস্কার হয়ে গেছে।

এবার আপনি ভাবতে পারেন যে, আচ্ছা এলগিরদম ব্যপারটা তো বুঝলাম, এতদিন তো ফেইসবুকের একটা এলগরিদম ছিলো, তাহলে হঠাৎ ফেইসবুকে এলগরিদমের পরিবর্তন আনতে হলো কেন?

আসলে সকল এলগরিদম ব্যবহারকারীরা অবস্থানের চাহিদার উপর ভিত্তি করে তাদের এলগরিদমে পরিবর্তন নিয়ে আসে। যাতে করে সহজেই তাদের ব্যবহারকারীদের একটি ভালো অভিজ্ঞতা প্রদান করতে পারে। এর ধারাবাহিকতায় ফেইসবুক ইতিপূর্বে ২০০৪ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত ১০ বার এলগরিদমের গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন নিয়ে এসেছিলো, এবং ২০২১ শে সর্বশেষ গুরুত্বপূর্ন পরিবর্তন নিয়ে এসেছে। যার প্রধান কারণ হলো ফেইসবুক ব্যবহারকারীদের ফেইসবুকে সকল ফিচার গুলোর সাথে সকল গ্রাহকদের সমানভাবে সংযোগ স্থাপন করা যায় এবং ফেইসবুকের অর্গানিক রিচ বৃদ্ধি করা যায়। একটু লক্ষ্য করলে দেখবেন ২০০৪ থেকে ২০১৫ পর্যন্ত ফেইসবুকের ফেইসবুক পেইজ, গ্রুপ এবং ইভেন্ট ব্যতীত অন্য কোন ফিচার ছিলো না, আর এগুলোর ব্যবহার ছিলো সীমিত আকারে। যার ফলে ফেইসবুক সহজেই সব মাধ্যমগুলো থেকে ভালো মানের অর্গানিক রিচ দিতে সক্ষম ছিলো। কিন্তু ২০১৫-২০২১ পর্যন্ত ফেইসবুক অনেকগুলো ফিচারের সংযুক্তি ঘটিয়েছে। সেগুলো হলো, ফেইসবুক লাইভ, ফেইসবুক মার্কেটপ্লেস, ফেইসবুক ক্রিয়েটর, ফেইসবুক কর্মাস, ইন্সটাগ্রাম, হোয়াটসএপ, ফেইসবুক অডিয়েন্স নেটওয়ার্ক, ফেইসবুক জব, ইন্সটান্ট আর্টিকেল, ফেইসবুক গেইম, ফেইসবুক রুম, ফেইসবুক স্টোরি প্রভৃতি। পাশাপাশি ২০১৫-২০২১ এর মধ্যে পুরো বিশ্ব অনলাইন ব্যবসার চাহিদা বৃদ্ধির কারণে ফেইসবুকের পেইজ এবং গ্রুপের ব্যবহার বেড়েছে আকাশচুম্বী। এখন প্রায় প্রত্যেক ফেইসবুক ইউজারের কমপক্ষে ১-২ টি নিজস্ব পেইজ এবং গ্রুপ রয়েছে। যার ফলে ফেইসবুকের পূর্বের এলগরিদম থেকে এত পরিমান রিচ দেওয়া সম্ভব হয়ে উঠছে না। যার ফলে একটি গ্রুপে বা পেইজে লক্ষাধিক লাইক থাকার পরেও পোস্ট গুলোতে ভালো রিচ আসছিলো না। কারণ আমাদের কারো পক্ষে একসাথে এতগুলো জিনিস নিউজ ফিডে দেখা সম্ভব নয়।

তাই ফেইসবুক গ্রাহককে তাদের ফিচার এবং রিচ পুর্নাঙ্গভাবে দেবার জন্য ২০২০ সাল থেকে কাজ করে যাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় ২০২০ সালে তাদের ওয়েবসাইটের এবং এপের ডিজাইনে কিছু পরিবর্তন নিয়ে আসে যাতে করে ব্যবহার কারী ফেইসবুকের সকল ফিচার একসাথে ব্যবহার করতে পারে। ফেইসবুকের পরিবর্তনগুলো হলোঃ

১। হোম ট্যাবের পাশে গ্রুপ ট্যাব, যেখানে সকল গ্রুপের আপডেট গুলো একসাথে দেখা যায়।
২। মার্কেটপ্লেস ট্যাব, যেখানে বিভিন্ন শপের পন্যগুলোকে ব্যবহারীর কাছে তুলে ধরা যায়।
৩। ভিডিও ট্যাব, যেখানে ফেইসবুক ক্রিয়টরদের ভিডিও গুলো একসাথে ব্যবহারকারীর নিকট তুলে ধরা যায়।

এতে করে ব্যবহারকারীরা তাদের ইচ্ছামত তাদের প্রয়োজনীয় বিষয়গুলো খুজে পেতে পারে এবং গ্রুপ, ভিডিও ও পন্যের রিচ বৃদ্ধি করা যায়। এগুলোর উন্নয়নে ফেইসবুক সমাধান আনতে পারলেও পেজের রিচ বৃদ্ধিতে ফেইসবুক ব্যর্থ হয়। যার অন্যতম কারণ হচ্ছে ফেইসবুক পেইজ লাইক।

ফেইসবুক লক্ষ্য করলো যে একটি পেইজে একজন ব্যবহারকারী কোন বন্ধু থেকে ইনভাইট পেয়ে বা কোন একটি পোস্ট বা এডস থেকে প্রভাবিত হয়ে একটি পেইজে লাইক করছে। কিন্তু সে পেইজ টি ফলো করছে না। আর ফলো না করার কারণে ফেইসবুক তার কাছে ওই পেজের আপডেট পৌছে দিচ্ছে না। যার কারণে ওই ব্যক্তি ঊক্ত পেজের শুধুমাত্র একজন লাইকার হিসেবে থাকছেন এবং ওই পেইজের রিচ কম হচ্ছে।

এরই ধারাবাহিকতায় ফেইসবুক সিদ্ধান্ত নেয়, তারা ফেইসবুক থেকে এই লাইক অপশনটি তুলে নিবে, এবং এর বদলে শুধু ফলোয়িং অপশনটি রেখে দিবে। ২০২০ সালের শেষের দিকে এসে তারা বেটা ভার্সনরুপে এই ফিচারটি চালু করে যাতে। যেখানে বিজনেস পেইজটি একটি সাধারন পেজের মত কাজ করে, পেইজটিতে ব্যবহারকারীরা লাইকের বদলে ফলো অপশনটি পায়। পাশাপাশি পেইজটিও স্বয়ং সাধারন প্রোফাইলের মত করে তার ফলোয়ারদের এবং কম্পিটিটরদের ফলো করে তাদের টাইমলাইনে লাইক, কমেন্ট করতে পারে। বেটা ভার্সনের পর ফেইসবুক এটির সুফল পায় এবং ২০২১ থেকে তাদের পুরাতন অনেক পেইজে এই ফিচারটি চালু করে। পাশাপাশি সকল ফেইসবুক পেইজে এই ফিচারটি আনার কাজ চলমান রেখেছে।

২০২০ সালে ফলো ফিচার এনে রিচ সমস্যার সমাধান আনলেও ফেইসবুক আরেকটি সমস্যা দেখতে পায়, সেটি হলো ফেইসবুক নিউজফিড। কারণ ফেইসবুক গ্রুপ ফিড, ভিডিও ফিড এবং মার্কেটপ্লেস ফিডে শুধুমাত্র সেই সম্পর্কিত ফিডগুলো করে থাকে, কিন্তু নিউজফিডে সবথেকে বেশি প্রাধান্য পেয়ে থাকে ফেইসবুক প্রোফাইলের কানেক্টেড বন্ধুদের ফিড, এরপর ফেইসবুক পেইজ এবং ফেইসবুক এডস গুরুত্ব পায়। পাশাপাশি নিউজ ফিড হোম ট্যাব হওয়াতে এখানে অন্যান্য ফিডের তথ্যও তুলে ধরা হয়। তাই ফেইসবুক পেইজ গুলোর অর্গানিক রিচ দেওয়ার লক্ষ্যে ফেইসবুক জানুয়ারী ২০২১ এ তাদের এলগরিদমে গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন নিয়ে আসে এবং যার কাজ এখনো চলমান রয়েছে। ফেইসবুক আশাবাদী এই আপডেট পরিপূর্ণ ভাবে শেষ হলে ব্যবহারকারীকে একটি সুন্দর অভিজ্ঞতা এবং পেইজগুলো কে অর্গানিক রিচ দেওয়া সম্ভব হবে। চলুন এবার নতুন এলগরিদম সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

ফেইসবুক নিউজফিড এলগরিদম আপডেট ২০২১ঃ

এই এলগরিদম আপডেটে ফেইসবুক ৪ টি ধাপ নিয়ে এসেছে সেগুলো হলো:

১। Inventory Available: এই ধাপে কোন পোস্ট ফেইসবুকে করা হলে সেই পোস্টটি ফেইসবুকের ইনভেনটরিতে জমা হবে এবং কোন ব্যক্তি ফেইসবুকে প্রবেশ করে স্ক্রোলিং করার সময় তার পূর্বের আচরণের উপর ভিত্তি করে ফেইসবুক পোস্টটি প্রদর্শন করানো শুরু করবে। এই ইনভেনটরিতে ব্যবহারকারীর ফেইসবুকের বন্ধুদের এবং ফেইসবুকের সকল পাবলিশারদের সকলধরনের পোস্ট স্থান পাবে।

২। Signals: এরপর ফেইসবুক ২য় ধাপে উক্ত প্রদর্শিত পোস্টটির উপরে ব্যবহারকারীদের অনেকগুলো সিগনাল লক্ষ্য করবে। যেমন পোস্টটি কি ধরনের, কে পাবলিশ করছে, কোন ধরনের ব্যবহারকারী উক্ত পোস্টে এনগেজ হচ্ছে, তাদের বয়স কি রকম ইত্যাদি। চলুন ফেইসবুকের চারটি গুরুত্বপূর্ন সিগনাল সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাকঃ

ক। Relationship: ফেইসবুক ব্যবহারকারীর সাথে পোস্টদাতার রিলেশন চেক করে, এই পোস্টটি কি কোন ফেইসবুক ফ্রেন্ড করেছে, নাকি কোন বিজনেস পেইজ, নাকি কোন পাবলিক ফিগার প্রভৃতি।

খ। Content type: আপনি কি ধরনের তথ্য প্রকাশ করেছেন তা ফেইসবুক যাচাই করে দেখে। উদাহরন সরুপ, এটি কি শুধু লেখা, নাকি ছবি, নাকি ভিডিও ইত্যাদি। এটি নির্নয়ের পর ফেইসবুক যাচাই করে যে ধরনের কন্টেন্ট ব্যবহারকারীরা পচ্ছন্দ করে এটি তার সাথে সামজস্য পূর্ণ কিনা?

গ। Popularity: যাদের কাছে এই পোস্টটি দেখানো হয়েছে সেখানে পোস্টটির জনপ্রিয়তা কেমন। তারা এটাতে কি পরিমান রিয়েকশন, কমেন্টে এবং শেয়ার করছে।

ঘ। Recency: এই পোস্টটি কতটি নতুন। ফেইসবুক নতুন পোস্টগুলো এবং কম সময়ে পোস্টগুলোতে ব্যবহারকারীদের আচরণ প্রদর্শন করে।

৩। Predictions: এধাপে ফেইসবুক এলগরিদম প্রদর্শিত পোস্টটিতে সিগনালগুলোর ভিত্তিতে নতুন ব্যবহারকারীদের নিকট পোস্টটিকে পাঠানো শুরু করবে এবং পূর্নাঙ্গ আচরণ লক্ষ্য করবে। ফেইসবুক যাচাই করে দেখবে রিচ অনুপাতে ব্যবহারকারীদের নিকট থেকে পোস্টটি কতটি লাইক, কমেন্ট বা শেয়ার পাচ্ছে।

৪। Relevance Score: এইধাপে ফেইসবুক উক্ত পোস্টের সকল খুটি-নাটি বিষয়গুলো যাচাই বাছাই করবে এবং ব্যবহারকারীদের উক্ত পোস্টের আচরণের উপর ভিত্তি করে একটি পূর্ণাঙ্গ স্কোর প্রদাণ করবে। যা পরবর্তী পোস্টের ক্ষেত্রে নতুন পোস্টের রিচের ক্ষেত্রে গ্রহণযোগ্যতা পাবে।

যে বিষয়গুলো এধাপে পরিলক্ষিত হবেঃ

ক। ব্যবহারকারীদের থেকে পোস্টটিতে কি ধরনের সাড়া পড়েছে। (লাইক, কমেন্ট, শেয়ার)।

খ। ব্যবহারকারীরা পোস্টটিতে ক্লিক করেছে কিনা, (see more and other buttons)।

গ। ব্যবহারকারীরা উক্ত পোস্টে কতক্ষন সময় অতিবাহিত করছে।

ঘ। ব্যবহারকারীদের কাছে পোস্টটি Informative কিনা।

ঙ। পোস্টটির মাধ্যমে ব্যবহারকারীদের Mislead করা হচ্ছে কিনা।

চ। পোস্টটিতে ব্যবহারকারী অন্য ব্যবহারকারীদের মেনশন করছে কিনা বা কারো সাথে ফেইসবুক ম্যসেঞ্জারে লিংক শেয়ার করছে কিনা।

উপরের উল্লেখিত এই চার ধাপের উপর নির্ভর করে ফেইসবুক নিউজফিডে পোস্ট গুলোকে প্রর্দশন করবে।

চলুন এবার জেনে নেওয়া যাক, কোন ধরনের পোস্ট এই এলগরিদম খুজে পেলে আপনার পেইজকে ডিমোটেড করবেঃ

১। Engagement Bait: আমরা এই এলগোরিদমে লক্ষ্য করেছি যে, এটি ব্যবহারকারীদের লাইক, কমেন্ট এবং শেয়ারের উপর ভিত্তি করে engagement বৃদ্ধি করা যায়। এজন্যে আমরা এমন কিছু পোস্ট করলাম যাতে করে ব্যবহারকারী দের এংগেজ হতে বাধ্য করা হয়। এধরনের পোস্ট রেগুলার করলে আপনার পেইজর রিচ এবং অর্গানিক পারফর্মেন্স ডিমোটেড হতে শুরু করবে। এবং আপনার পেইজ ফেইসবুক এলগরিদমে প্লান্টি মার্কড হবে। কিছু Engagement Bait এর উদাহরনঃ

ক। Vote Baiting: আমরা অনেক সময় অনেক পেইজ এবং গ্রুপে দেখি যে একটি পোস্টে আমাদের রিয়েকশনের মাধ্যমে ভোট নেওয়া হয়। যেমন মেসি হলে "লাভ" রিয়েকশন, নেইমার হলে "স্যাড" রিয়েকশন। এধরনের পোস্টকে Vote Bating বলে।
খ। React Baiting: যে ধরনের পোস্টে ব্যবহারকারীকে রিয়েক্টের জন্য বাধ্য করা হয়। যেমনঃ এটি পবিত্র কোরাআন শরিফ, গীতা দেখা মাত্র আপনি মুসলিম, হিন্দু হলে লাভ রিয়েক্ট দিয়ে যান।

গ। Share Baiting: এ ধরনের পোস্ট দিয়ে শেয়ার করতে বাধ্য করা হয়। যেমন এই মেসেজটি ১৫ জন বন্ধুর সাথে শেয়ার করলে ২ দিনের মধ্যে অবশ্যই ভালো সংবাদ পাবেন।

ঘ। Tag Baiting: এধরনের পোস্টে ট্যাগ বা মেনশন করতে বাধ্য করা হয়। যেমন; আপনার টাইমলাইনের ১ম বন্ধুকে মেনশন বা ট্যাগ দিন, উনি আপনাকে নিয়ে ঘুরতে নিয়ে যাবে।

ঙ। Comment Baiting: এধরনের পোস্টে কমেন্ট করতে বাধ্য করা হয়। উদাহরনসরুপ, এখন রাত ১ টা বাজে একবার, কে কে জেগে আসেন কমেন্টে জানান দিন।

২। Clickbait Headline: যে ধরনের পোস্টগুলো মানুষকে ক্লিক করতে বাধ্য করে কিন্তু যা প্রকৃতপক্ষে মানুষকে Mislead করে, বা স্প্যামি এমন কিছু শেয়ার করা যাবে না। যেমনঃ ৫ দিনে আপনার ত্বককে করে তুলুন আকর্ষনীয়।

৩। Low-quality webpage link: নিম্নমানের তথ্য শেয়ারকৃত লিংক শেয়ার করা যাবে না। যেখানে লিংকে ক্লিক করে ব্যবহারকারী হতাশ এবং ক্ষুব্ধ হতে পারে।

চলুন এবার জেনে নেওয়া যাক, কি কি কাজ করে ফেইসবুক পেজের অরগানিক রিচ বাড়ানো যেতে পারেঃ

১। ইউনিক, এনগেজিং এবং আপনার ফলোয়ারদের সাথে সামজস্যপূর্ণ এই জাতীয় পোস্ট করতে হবে। উদাহরণসরুপঃ আপনি কাপড় বিক্রেতা, যদি আপনি কিভাবে কাপড় দ্রুত গুছানো যায়, অনেকদিন ভালো ভাবে রাখা যায় এসম্পর্কে পোস্ট করেন তবে আপনার ফলোয়াররা তাতে এনগেজ হবেন।

২। আপনার পেইজের ফলোয়াররা যেন আপনার পেজের প্রত্যেকটি আপডেট নিয়মিত পায়, এজন্য তাদের আপনার পেইজের প্রবেশের পর "Following section" এ ক্লিক করে "See First" করে রাখতে বলুন।

৩। প্রতিনিয়ত আপনার ফলোয়ারদের সময়ের উপর নির্ভর করে পেইজে পোস্ট করুন। প্রয়োজনে কম পোস্ট করুন, কিন্তু সময় ঠিক রাখুন।

৪। পেইজে ইমোশনাল কন্টেন্ট পোস্ট করুন, যা আপনার ফলোয়ারদের Interest, Curiosity, Amazement, Astonishment, Uncertainty, Admiration প্রভৃতি বৃদ্ধি করে।

৫। পেইজে নিয়মিত ভিডিও পোস্ট এবং ফেইসবুক লাইভ করুন। ফেইসবুক ভিডিও সবথেকে বেশি রিচ দিয়ে থাকে।

৬। পেইজের ক্লায়েন্ট কনভারসেশন গুলো ভালো ভাবে ম্যানেজ করুন। সকল কমেন্টের রিপ্লে দিন।

৭। আপনার কাস্টমারদের নিয়ে একটি ফেইসবুক গ্রুপ খুলুন এবং তাদের সাথে ভালো সম্পর্ক তিরী করুন। পেজের আপডেট গুলো গ্রুপে শেয়ার করুন,

৮। আপনার কাস্টমারকে আপনার পেইজকে মেনশন দিয়ে আপনাকে নিয়ে পোস্ট করতে প্রভাবিত করুন। আপনার পেজের রিচ বৃদ্ধি পাবে।

৯। আপনার পোস্টকৃত কন্টেণ্ট গুলো কে যাচাই-বাছাই করুন এবং প্রয়োজনীয় কন্টেন্ট তিরী করুন।

১০। অল্প সময়ের জন্য ফেইসবুকে এডস দিন, এটি পেইড রিচের পাশাপাশি অর্গানিক রিচ বৃদ্ধিতে সহায়তা করবে।

আজকের এই আর্টিকেলটিতে আমি ফেইসবুক এলগরিদম আপডেট এবং রিচ সম্পর্কিত খুটিনাটি সকল বিষয়গুলো তুলে ধরতে চেষ্টা করেছি। প্রত্যাশা রাখছি আর্টিকেলটি আপনার ফেইসবুক ব্যবসা পরিচালনায় সহায়ক হবে।

সকলের সুস্বাস্থ্য কামনা করছি।
ধন্যবাদ

লেখক : ফ্রিল্যান্সার , উদ্যোক্তা ও সিইও- ইনোভেট ডিজিটাল


Somoy Journal is new coming online based newspaper in Bangladesh. It's growing as a most reading and popular Bangladeshi and Bengali website in the world.



স্বত্ব ২০২১ সময় জার্নাল | ডেভেলপার এম রহমান সাইদ