শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

ডা. জাহাঙ্গীর কবির যা বললেন

প্রতিদিন ২৩ রকমের ওষুধ খাবে কিডনীর রোগী!!

রোববার, আগস্ট ১, ২০২১
প্রতিদিন ২৩ রকমের ওষুধ খাবে কিডনীর রোগী!!

ডা. জাহাঙ্গীর কবির :
এই পোস্ট দেবার উদ্দেশ্য কিন্তু কাউকে হেয় করার জন্য নয়; তাই কেউ কাউকে হেয় করে কোন কথা না বলে যদি মূল যে বিষয় বোঝাতে চাই সেটা নিয়ে গঠনমূলক কথা বলি তাহলে খুশি হব।
এই রোগীটি নিয়মিত ডাক্তার দেখায় নিয়মিত ওষুধ খায় ডাক্তারের পরামর্শ যথেষ্ট মেনে চলে । আজ তার প্রাপ্তি ২৩ ধরনের ওষুধ এবং কিডনী নষ্ট ওনার বর্তমান Serum creatinine ৮.০৮।

আপনার যদি যেকোন বড় হাসপাতাল বিশেষ করে BIRDEM এর কিডনী বিভাগে যান সব রোগীকে প্রশ্ন করেন আপনাদের কিডনী কিভাবে নষ্ট হল ওনারা কি উত্তর দিবেন ? ওনারা কি ডাক্তার দেখান নাই ? দেখিয়েছেন ওনারা কি উপদেশ মানেন নাই? মেনেছেন বা মানার চেস্টা করেছেন। যে খাবার ডাক্তারগন খেতে বলেছেন সেভাবেই খেয়েছেন তবুও আজ তাদের ওষুধ বেড়ে ২৩ টি হয়েছে কারো ক্ষেত্রে ৩২ টি পর্যন্ত ।

দেখবেন প্রেশার নিয়ে গেলে প্রথম একটি ওষুধ পরে দুইটি তিনটি এভাবে বেড়েই চলেছে । ডায়াবেটিস হলেও একই কথা একটি দুইটি তিনটি ওষুধ এরপর ইনসুলিন। চর্বি বাড়লেও বা লিভারে চর্বি জমলেও একই অবস্থা । হার্টের সমস্যা হলেও একই কথা এমনকি পেটের সমস্যা বা গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা হলেও একই।

ভুলটা আসলে কার আমাদের রোগীদের, নাকি ডাক্তারদের নাকি আমাদের যারা এভাবে চিকিৎসা করতে শেখাচ্ছেন তাদের।
আমি যত বই পড়েছি গাইডলাইন পড়েছি সবখানে বলা আছে Lifestyle disease Lifestyle দিয়ে manage করতে হবে।
যাদের Lifestyle ভালো না ওষুধ তাদের সাহায্য করবে না আর আমি দেখেছি Lifestyle ভালো থাকলে ওষুধ লাগে না।

আমরা জানি Blood Acidic থাকলে Kidney নষ্ট হয়,
আমাদের অবশ্যই Acidic Food avoid করতে হবে আমাদের মেডিকেলে এটা শেখানোই হয়নি কোনগুলো Acidic food কোনগুলো Alkaline Food আমাদের Food drug Interaction শেখানো হয়নি তবে Drug drug interaction শেখানো হয়েছে।
আমাদের Insulin Resistance শেখানো হয়নি আমাদের Insulin Index ( কোন খাবার খেলে কত Insulin secretion হয়) শেখানো হয়নি । আমরা Glycemic Index Glycemic load বিবেচনা না করেই রোগীদের শরীরে Sugar বাড়ে এমন খাবার suggest করছি কারন এমনটিই আমাদের শেখানো হয়েছে।

আমাদের Autophagy এর Clinical Application শেখানো হয়নি Fasting দিয়ে যে চিকিৎসা করা যায় এটা শেখানো হয়নি এবং New England Journal এ স্পস্ট গাইডলাইন দেয়ার পরও আমরা সেটার ব্যাপারে অন্ধ এবং সেটার আলোকে রোগীকে পরামর্শ দেয়া তো দূরের কথা নিজেই যে একটু পড়ে দেখবো সেটাও দেখছি না।

Blood pressure বেশি থাকেল এবং প্রেশারের ওষুধ খেলে উভয়ই kidney নষ্ট করতে ভূমিকা রাখে যেকোন chemical medicine blood কে acidic করে দিতে ভূমিকা রাখে। প্রেশার বাড়ার সাথে খাবারের ভূমিকা আছে এ ব্যাপারে মেডিকেলে আমাদের শেখানো হয়নি যেসব খাবারের Insulin Index বেশি তারা Insulin এর মাত্রা বাড়ায় Insulin নিজে Aldosterone বাড়ায় শরীরে লবন এবং পানি ধরে রাখে Blood volume বাড়ে Blood pressure বাড়ে শরীরে পানি জমে পা ফুলে যায় (Oedema)।

Diabetes Type 2 মূলত Insulin Resistance এর কারনে হয় তাহলে এমন খাবার খাওয়া উচিত না যেটার Insulin Index বেশি।রক্তে Sugar বেশি হলে , Insulin বেশি হলে , kidney নষ্ট হয় ডায়াবেটিসের ওষুধও কিডনী নষ্ট করতে ভূমিকা রাখে। এ কারনেই সকল ডায়াবেটিস রোগীকে নিয়মিত কিডনী পরীক্ষা করতে হয় তবে শেষ পর্যন্ত প্রায় সব রোগীরই কিডনী বিকল হয়। BIRDEM এ এরকম একটি বিভাগই আছে।

আমাদের যদি ঘুম ভালো না হয় যদি আমরা অতিরিক্ত দুঃশ্চিন্তা করি তবে আমাদের বডিতে stress hormone release হয় যার মাধ্যমে Blood Acidic হয় Blood pressure বাড়ে আর Diabetes ও বাড়ে আর Muscle ( protein) ভেংগে sugar তৈরি হয় এবং protein এর skeleton kidney দিয়ে প্রস্রাবের সঙ্গে বেরিয়ে যায় আমরা অনেক রোগীর Urine এ Microalbumin পাই।তাহলে অতিরিক্ত stress আমাদের Kidney নষ্ট করে ।

Blood Acidic হলে অনেকরকম Inflammation হয় শরীরে অনেক ব্যথা বেদনা হয় যদি আমরা ব্যথার ওষুধ খাই তবে কিডনী নষ্ট হয় এটা আমরা অনেকেই জানি তবে জেনেও ব্যথা সহ্য করতে না পেরে ওষুধ খেয়ে ফেলি।

একবার একটু ভাবুন আমরা ডাক্তারগন কি রোগীকে তার রোগের মূল কারন বুঝিয়ে দিচ্ছি তাদের Medicine এর side effects সম্পর্কে কোন counselling করছি নাকি শুধু ওষুধ লিখছি এবং ওষুধের ডোজ বাড়াচ্ছি।

বাংলাদেশে আমি অনেক মানবিক ডাক্তারের সঙ্গে কাজ করেছি তারা রোগীদের কষ্ট বুঝে আমাদের সবার উচিত মানবিক ডাক্তার হওয়া । তবেই আমাদের কেউ কসাই বলবে না গুটিকয়েক ডাক্তার টেস্ট লিখে কমিশন খায়, ওষুধ কোম্পানীর টাকা নেয় চুক্তি করে ওষুধ লিখে, ইনসুলিন লেখে, রোগী রেফার করে টাকা নেয়, ভুয়া সার্টিফিকেট দিয়ে টাকা নেয়, অপ্রোয়জেন অপারেশন করে কিন্তু বেশিরভাগ ডাক্তারতো অনেক ভালো মানবিক প্র্যাকটিস করে । গুটিকয়েক খারাপ লোকের জন্য পুরো ডাক্তার সমাজের অপমান মেনে নেয়া যায় না । আমি মনে করি ডাক্তারী পেশাটা অন্য পেশার চেয়ে অনেক আলাদা সকল পেশাই মানবিক পেশা তবে এখনও বাংলাদেশের মানুষ ডাক্তারদের ভালোবাসে এবং ভালোবাসে বলেই তাদের কাছে মানবিকতা আশা করে । তারাই তো কোর্টে গিয়ে সরকারি অফিসে গিয়ে মানবিকতা আশা করে না কারন তার mindset বলে দেয় কোথায় কি আশা করি উচিত।

আমি সবাইকে বলবো ডাক্তারদের ভালোবাসুন তাদেরকে আরো মানবিক হতে সাহায্য করুন।
লম্বা পোস্টটি কষ্ট করে পড়ার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ।
বি: দ্র: এখানে যিনি রোগীকে এতগুলো ওষুধ দিতে বাধ্য হয়েছেন তার জায়গায় যে কেউ এত ওষুধ দিতে বাধ্য হবেন এমনকি আমি হলেও। আর রোগীকে আমি নিজেও কোন ভালো পরামর্শ দিতে পারি নাই কারন বার বার বলেছি Organ damage হলে আমাদের কারো কিছু করার থাকে না।

আবারও বলছি বাজে মন্তব্য করবেন না পোস্টের মূল উদ্দেশ্য হলো সচেতন না হলে আমাদের সবারই এমন পরিনতি হবে, তাই চলুন এগুলো থেকে বাঁচতে চাইলে Lifestyle ঠিক করুন ।


Somoy Journal is new coming online based newspaper in Bangladesh. It's growing as a most reading and popular Bangladeshi and Bengali website in the world.



স্বত্ব ২০২১ সময় জার্নাল | ডেভেলপার এম রহমান সাইদ