শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

সাধারণ মানুষের কিছু প্রশ্নের উত্তর দিলেন ডা. সাকলায়েন

মঙ্গলবার, আগস্ট ৩, ২০২১
সাধারণ মানুষের কিছু প্রশ্নের উত্তর দিলেন ডা. সাকলায়েন

ভেসে বেড়ানো কিছু প্রশ্নের মেডিকেলীয় উত্তর

১।
লাইফ স্টাইল মানলেই কি ঔষধ থেকে বাঁচা যায়?

উত্তরঃ
লাইফ স্টাইল রোগ প্রতিরোধে সাহায্য করে। কাজে লাগে রোগ হওয়ার পরও। তবে রোগ হয়ে যাওয়ার পর ঔষধ ও লাইফ স্টাইল দুটোই লাগবে...লাইফ স্টাইল ঔষধ কমাতে ও রোগের ভাল নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে। একেবারে ঔষধ থেকে মুক্তি দিবে এমন গ্যারান্টি নাই।

২.
কিটো কি ডায়েট?

উত্তরঃ
এটাকে ডায়েট না বলে চিকিৎসা বলাই ভাল। ডায়েট বলতে মূলত ব্যালেন্স ডায়েটকে বুঝি আমি। যেখানে সব খাদ্য উপাদান ব্যালেন্ড ওয়েতে থাকবে।

৩.
ডাক্তাররা লাইফ স্টাইলের কথা বলেন না। অনেক ঔষধ দেন। এতে করে কিডনির ক্ষতি হয়। কতটুকু সত্য?

উত্তরঃ
সব ডাক্তারই লাইফ স্টাইলের কথা বলেন। একই দেহে অনেক রোগ ঢুকে গেলে ঔষধের পরিমানও বেড়ে যায়। সব ঔষধের কম বেশি পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া আছে। লাভ ক্ষতি বিবেচনায় ঔষধ প্রেসক্রাইব করতে হয়। ডায়াবেটিস বা প্রেসার নিয়ন্ত্রণে না রাখলে কিডনির ক্ষতি হয়, ঔষধে নয়।
৪.
নিয়মতি ডাক্তার দেখানোর পরও কেন কিডনি নষ্ট হয়?
উত্তরঃ
এই কিডনি নষ্টের পিছনে দায়ী কে?
ঔষধ?
ডাক্তার?
নাকি রোগীর জেনেটিক ও লাইফস্টাইলজনিত প্রবলেম?
হুম এটাই প্রবলেম। প্রবলেম ডায়াবেটিস ও প্রেসার নিয়ন্ত্রণে না রাখা।

৫.
Lifestyle disease কি শুধু Lifestyle দিয়ে ম্যানেজ করা যাবে?
লাইফ স্টাইল ভাল না হলে কি ঔষধ কাজ করবেনা? লাইফ স্টাইল ভাল থাকলে কি ঔষধ লাগবেনা?

উত্তরঃ
লাইফ স্টাইল রোগ প্রতিরোধ ও যেকোন চিকিৎসার একটা অংশ মাত্র। যার ব্লাড থিনার লাগছে IHD বা Post CABG হিসেবে। তাদের কি ব্লাড থিনার বাদ দিবেন লাইফ স্টাইল দিয়ে?

DM থেকে Retinopathy, Nephropathy তাদের লাইফ স্টাইল মডিফাই করে কি কিভাবে ঔষধমুক্তি ঘোষনা করবেন?

অসুখ হলে ঔষধ লাগবে। লাইফ স্টাইল দিয়ে সে ঔষধ কমানো যেতে পারে। নিজের সক্ষমতা বাড়ানো যেতে পারে।

ডায়াবেটিস Environmental and Genetic disease. এর অর্থ জন্মগতভাবে আপনি এ রোগ দুনিয়াতে নিয়ে আসেন। লাইফ স্টাইল খারাপ হলে এ রোগ অল্প বয়সে হবে, ভাল হলে দেরিতে হবে বা বড় আকারে হবেনা।

৬.
ডায়েটের জন্য কার কাছে যাব?

উত্তরঃ
পুষ্টিবিদ। আবারো বলছি পুষ্টিবিদ বা ডায়েটিশিয়ান।
অনলাইনের ডায়েটপ্ল্যান আপনার জন্যে নয়। একেকজনের শারীরিক অবস্থাভেদে ডায়েটপ্ল্যান একেক রকম হয়।
অমুক ডায়েটে অমুকের অতো কেজি ওজন কমেছে। এর অর্থ এই না যে ঐ ডায়েট আপনার জন্যেও প্রযোজ্য হবে।

৭.
শুধুমাত্র সঠিক খাবারে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়। ঔষধের দরকার নেই।

উত্তরঃ
ভুল। শ্রদ্ধেয় ইব্রাহিম স্যারের 3D model এখনো সঠিক।
Diet
Drug
Discipline
ডায়াবেটিস কন্ট্রোলে এই ৩ টা জিনিসই লাগে।

৮.
ব্লাড প্রেসারের ঔষধ কিডনি নষ্ট করে?

উত্তর : 
ভুল। একেবারেই ভুল।
কিডনিকে সেইভ করার মূল উপায় হল প্রেসার নরমাল রাখা। প্রেসার নরমাল রাখতেই হবে সেটা ঔষধ খেয়ে হোক বা অন্য কোন উপায়ে হোক। উচ্চরক্তচাপ স্বাভাবিকভাবে কন্ট্রোল না হলে ঔষধ দিয়ে কন্ট্রোল করতেই হবে। অন্যথায় Hypertensive Nephropathy হবে, Retinopathy হবে। পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়া ঔষধ নাই। সব পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া আমলযোগ্য নয়। চিকিৎসকগণ রোগীর শারিরীক অবস্থা বিবেচনায় ঔষধ নির্বাচন করেন।
৯.
প্রেশার বাড়ার সাথে খাবারের ভূমিকা আছে এটা রোগীদের জানানো হয় না?

উত্তরঃ
যতটকু মনে পড়ে এগুলো সর্বদা জানানো হয়। ছোট বেলায় নানী পাতে আলগা লবন খেতে নিষেধ করতেন। কারণ তার ডাক্তার জানিয়েছিলেন লবনে প্রেসার বাড়ে।

১০.
ডায়াবেটিসের ঔষধে কিডনী নষ্ট হয়?

উত্তর?
ভুল। একেবারেই ভুল। কিছু ঔষধে কিডনির উপর সাইড ইফেক্ট ক্রিয়েট করতে পারে। কিন্তু রোগীর শারীরিক দিক বিবেচনায় ঔষধ নির্বাচন করা হয়। সেক্ষেত্রে কিডনির ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা থাকেনা। বরং ডায়াবেটিস নিয়িন্ত্রণে না থাকলে কিডনি নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা শতভাগ। কিডনি ভাল রাখার মূল মন্ত্রই হল ডায়াবেটিস প্রেসার নিয়ন্ত্রণ, ব্যথানাশক ঔষধ বর্জন বা না খাওয়া, লাইফ স্টাইল ঠিক রাখা।

১১.
ডায়াবেটিস রোগীকে নিয়মিত কিডনী পরীক্ষা করার পরও শেষ পর্যন্ত প্রায় সকল রোগীরই কিডনী বিকল হয়।

মতামতঃ
সব রোগীরই কিডনি বিকল হয় এ কথাটা যুক্তিহীন। চিকিৎসার উদ্দেশ্য থাকে..
-কিডনি বিকল প্রতিরোধ করা
-হয়ে গেলে বিকল হওয়ার গতি ধীর করে দেয়া
-পেশেন্টের কোয়ালিটি অব লাইফ ইম্প্রুভ করা।
সবার বিকল হয় না। কারো কারো হয়। নিয়ম না মানা ও ঔষধ গ্রহণে গাফিলতির কারণে তাদের কিডনি বিকল হয়। যাদের হয় ঔষধ ও লাইফ স্টাইল মডিফিকেশন দ্বারা তারা দীর্ঘদিন ভাল থাকেন।

১২.
বাংলাদেশের ডাক্তাররা ভাল হলে রোগীরা বিদেশ যেত না?

উত্তরঃ
যেত। ১০০ ভাগ ভাল হলেও যেত। পোশাক রপ্তানিতে আমরা বিশ্বে ২য়। প্রথমও ছিলাম। তারপরেও শপিং এ বিদেশ যাই৷ থামেনা এ শপিং।
আবার সিজার করতে কেউ বিদেশ যায় না। যায় না নরমাল ডেলিভারি করতেও। উন্নত চিকিৎসার জন্যে বিদেশ গিয়ে উন্নত কফিনে ফিরে আসার ঘটনা নিত্য দিনেই দেখি আমরা।
তবে চিকিৎসকরা বেশি সময় দিলে, স্বাস্থ্যসেবকরা ভাল ব্যাবহার করলে, ক্লিনিকের মালিকপক্ষ দয়াবান হলে মানুষের আস্থা বেড়ে যাবে।

১৩.
টিকা নিলে ন্যাচারাল ইমিউনিটি মরে যাবে।তাই না নেয়াই ভাল।

উত্তরঃ
টিকা নিলে আপনার ন্যাচারাল ইমিউনিটি আরো সমৃদ্ধ হবে। আরো বেশি শক্তিশালী হয়ে উঠবেন আপনি। টিকা শতভাগ মুক্তি দেয় না। তবে মুক্তির সম্ভাবনা অনেক বাড়ায়।
তাই টিকা নিন এবং নিতেই হবে।

১৪.
আমার হার্টের রিং পরানো আছে। এখন ভাল আছি। হাটি, ডায়েট করি, রসুন খাই। ঔষধ বাদ দিব?

উত্তরঃ
না। রিং রোগ সারায় না। বাইপাস অপারেশনও সারায় না। বন্ধ রাস্তা চালু করে মাত্র। রোগ সারাতে ও প্রতিরোধে ঔষধ লাগবে। লাগবে সুষ্ঠু লাইফ স্টাইল।

১৫.
ঔষধ আর বিষের মধ্যে পার্থক্য কি?

উত্তরঃ
ঔষধ এমন একটা জিনিস যেটা সঠিক চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে না খেলে, সঠিক নিয়মে না খেলে বিষের ন্যায় কাজ করতে পারে।
বিষ এমন একটা জিনিস যেটা সঠিক চিকিৎসকের পরামর্শে সঠিক নিয়মে খেলে ঔষধের ন্যায় কাজ করে।

১৬. আজকের এ স্ট্যাটাসের উদ্দেশ্য কি?

উত্তরঃ
সম্প্রতি বাজারে ভেসে বেড়ানো প্রশ্নের উত্তর দিয়ে বিবেকের দায়মুক্তি করা। একই সংগে এটাও মনে করিয়ে দেয়া আমি ভাল জিনিস প্রমোট করার চেষ্টা করি। সবারই সেটা করা উচিত।
ভুল ত্রুটির উর্ধে আমি নই। হাটার পথটা ভুল হলে নিশ্চয়ই সে পথ এড়িয়ে চলি, চলব।
চিকিৎসক কাউকে বাঁচাতে পারেন না। তাঁর বেঁচে থাকাকে সুন্দর করতে পারেন মাত্র। আসুন ভাল থাকি। সবাই মিলে।


Somoy Journal is new coming online based newspaper in Bangladesh. It's growing as a most reading and popular Bangladeshi and Bengali website in the world.



স্বত্ব ২০২১ সময় জার্নাল | ডেভেলপার এম রহমান সাইদ