বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১

স্বাবলম্বী হবার ৩ মাস!

শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২১
স্বাবলম্বী হবার ৩ মাস!

মাদিহা আলভী অন্যন্যা: হুমম বলছি আমার ছোট্ট উদ্যোগ সুশ্রী-Sushri এর কথা। শুরু করেছিলাম ১৯ জুন ২০২১ এ। তারপর থেকে বড় কোনো সমস্যার সামনে না পড়লেও ছোট ছোট অনেক কিছু পার করতে হয়েছে। এবারে আসি এই ৩ মাসে আমি কি পেয়েছি, কতটুকু সফল হয়েছি!
 
এই  ৩ মাস জুনের পর থেকে এখন পর্যন্ত আমি বাসা থেকে ভার্সিটির ফর্মের টাকা ছাড়া কোনো টাকা নেই নি, এটাও নিতাম না যদি এমাউন্ট টা কম হতো। এছারা আমার সমস্ত খরচ নিজে বহন করেছি, নিজের খরচ বলতে একজন মানুষের থাকা খাওয়া বাদ দিয়ে যা যা খরচ লাগে সেগুলোর কথা বলছি। আমার আগে থেকেই হাত খরচের টাকা বাবার কাছে চাইতে ভালো লাগতো না তারপরও যেহেতু ছোটবেলা থেকেই বাহিরে থেকেছি তাই প্রতি মাসেই নির্দিষ্ট একটা এমাউন্ট আমার হাত খরচের জন্য বাবা পাঠায় দিতোই। যেটা গত ৩ মাসে আমি নেই নি।

আমি ৩ মাসে বুঝেছি নিজের উপার্জনের টাকায় একটা আলাদা শান্তি যেমন থাকে তেমনি বোঝা যায় এটার জন্য আমাকে কতটা কষ্ট করতে হয়েছে। আগে বাবা টাকা পাঠানোর এক সপ্তাহেই সব টাকা শেষ করে বসে থাকতাম তারপর দুইদিন পর আবার টাকা চাইতাম, তখন টাকা আজাইরা খরচ করতাম এতকিছু গায়ে লাগতো না। উপার্জনের জন্য পরিশ্রম কতটা করতে হয় তা এখন বুঝি। কতদিন রাত জেগে সোর্স খুঁজতে হয়েছে, কোথায় ভালো প্রোডাক্ট পাওয়া যাবে কোথায় দামে মিলবে এসব কিছুর পেছনে কতগুলো রাত যে ভোর পর্যন্ত গড়িয়েছে তা শুধু আমিই জানি। আমার বিজনেসের সব কাজ, আমি একাই করি, প্রোডাক্ট আনা কিংবা ডেলিভারি দেওয়া সব একাই করি। কত সময় যে কুরিয়ারে লাইনে দাড়ায় থাকতে হইছে তার ঠিক নেই। আবার লকডাউনে একদিনে ৪/৫ টা ডেলীভারি দিয়েছি এমনও হয়েছে। 

সবাই ভাবে অনলাইনে বিজনেস এ আর এমন কি! একটা পেজ খুলে পোস্ট করলেই হয়ে গেলো। জ্বী না ভাই, একটু চেষ্টা করে দেখেন ওভাবে আসলেই হয় কিনা! অনলাইনে মানুষের বিশ্বাস অর্জন করাটা অনেক বেশি কষ্টের। একটা প্রোডাক্ট এনে তার ফটোগ্রাফি থেকে শুরু করে কন্টেন্ট ক্রিয়েট তারপর বিভিন্ন জায়গায় পোস্ট করা সেগুলোর রেসপন্স করা! হ্যাঁ এই  কাজগুলো ঘরে বসেই হয় তবে বিনা পরিশ্রমে নয়।

আমি ভাগ্যবতী যে আমাকে আমার আশেপাশের মানুষ গুলো এত কম সময়ে অনেক বেশি সাপোর্ট করেছেন। আপনাদের ভালোবাসাতেই আমি এতটুকু পথ আসতে পেরেছি। যারা পাশে ছিলেন তাদের সবার প্রতি অনেক কৃতজ্ঞ আমি, এভাবেই ভালোবেসে আপনাদের দোয়াতে রাখবেন আমাকে।

সুশ্রীর পক্ষ থেকে সবাইকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।

লেখক: উদ্যোক্তা ও শিক্ষার্থী।

সময় জার্নাল/এমআই 


Somoy Journal is new coming online based newspaper in Bangladesh. It's growing as a most reading and popular Bangladeshi and Bengali website in the world.



স্বত্ব ২০২১ সময় জার্নাল | ডেভেলপার এম রহমান সাইদ