শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২

প্রধানমন্ত্রীর অনুদানে বিনামূল্যে হার্টের ভাল্ব পেল ৪ রোগী

মঙ্গলবার, অক্টোবর ৫, ২০২১
প্রধানমন্ত্রীর অনুদানে বিনামূল্যে হার্টের ভাল্ব পেল ৪ রোগী

সময় জার্নাল প্রতিবেদক :

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আর্থিক সহায়তায় এখন শান্তির হাসির রেখা দেখা যাচ্ছে জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন করিমন বিবি, সাদেকুর, জালাল, আহমেদ হোসেইন এবং মো. হেলাল উদ্দীনের মুখে।

সোমবার (৪ অক্টোবর) প্রধানমন্ত্রীর অনুদানে এই ৪ জন হৃদরোগ আক্রান্ত ব্যক্তির হার্টে রিং বসানো হয়েছে। একই সঙ্গে দুই জন রোগীর হার্টে পেসমেকার স্থাপন করা হয়েছে। তারা এখন সবাই সুস্থ।

রিং পেয়ে সাদেকুর বলেন, ‘সরকারের এ সহযোগিতা গরীবদের জন্য ভালোই হবে। এ চিকিৎসায় অন্যান্য হাসপাতালে যেখানে আড়াই থেকে ৩ লাখ টাকা খরচ হতো, সেখানে আমাদের ১  টাকাও খরচ করতে হয় নি । মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর  জন্য আমি দোয়া করি। উনার প্রতি কৃতজ্ঞ থাকবো। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত আমি উনার জন্য দোয়া করবো।’ 

করিমন বিবির ছেলে নুর হোসেন বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সহায়তায় আমার মায়ের শরীরে পেসমেকার বাসানো হয়েছে। এতো টাকা খরচ করে আমার মায়ের চিকিৎসা করানোর সামর্থ ছিলো না। আমার মাকে নিয়ে ১  বছর ধরে হাসপাতালে হাসপাতালে ঘুরতেছিলাম।  আমরা অনেক আনন্দিত।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হৃদরোগে আক্রান্ত অসহায় ও গরিব রোগীদের বিনামূল্যে হার্টের ভাল্ব, রিং ও পেসমেকার কিনতে জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালকে আর্থিক অনুদান দেন। এসব চিকিৎসা সরঞ্জামের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিল হতে এককালীন ৩ কোটি ২৯ লাখ টাকা দেওয়া হয়েছে। চলতি বছরের ২২ আগস্ট প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব তোফাজ্জল হোসেন মিয়ার কাছ থেকে অনুদানের চেক গ্রহণ করেন হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীর জামাল উদ্দিন।

বিনামূল্যে গরিব রোগীদের শরীরে ভাল্ব, রিং ও পেসমেকার বাসনোর বিষয়ে অধ্যাপক ডা. মীর জামাল উদ্দিন বলেন, ‘গরীব অসহায় রোগীদের জন্য পেসমেকার, হার্টের রিং ও ভাল্ব স্থাপনের জন্য প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া অনুদানের টাকায় ১৫০টি পেসমেকার, ১৫০টি হার্ট রিং ও ১৫০ টি ভাল্ব কিনতে পারবো।’

তিনি আরও  বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সহায়তায় আমার মায়ের শরীরে পেসমেকার বাসানো হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর দেয়া বিশেষ এই অনুদানের এই টাকায় গতকাল প্রথমবারের মতো ৪ জন রোগীর শরীরে হার্টের রক্তনালী বন্ধ হয়ে যাওয়ায় তাদের শরীরে বিনামূল্যে রিং বসানো হয়েছে। দুই দিনে আমরা ছয় জনের শরীরে এনজিও গ্রাম বা হার্ট রিং বসিয়ে দিয়েছি। এছাড়া আরও দুইজনের শরীরে পেসমেকার ও তিন জনের শরীরে ভাল্ব স্থাপন করা হয়েছে। বিনামূল্যে গরীব রোগীদের এমন চিকিৎসা চলমান থাকবে।

সময় জার্নাল/ইএইচ


Somoy Journal is new coming online based newspaper in Bangladesh. It's growing as a most reading and popular Bangladeshi and Bengali website in the world.

যোগাযোগ:
এহসান টাওয়ার, লেন-১৬/১৭, পূর্বাচল রোড, উত্তর বাড্ডা, ঢাকা-১২১২, বাংলাদেশ
কর্পোরেট অফিস: ২২৯/ক, প্রগতি সরণি, কুড়িল, ঢাকা-১২২৯
ইমেইল: somoyjournal@gmail.com
নিউজরুম ই-মেইল : sjnewsdesk@gmail.com

কপিরাইট স্বত্ব ২০১৯-২০২২ সময় জার্নাল