শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২

দিনাজপুরে মির্জা ফখরুল :

অবিলম্বে এই সরকারকে পদত্যাগ করতে হবে

শনিবার, মে ১৪, ২০২২
অবিলম্বে এই সরকারকে পদত্যাগ করতে হবে

মাহবুবুল হক খান, দিনাজপুর প্রতিনিধি ॥ বিএনপি’র মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আমাদের সাফ কথা, আমরা চাই অবিলম্বে এই সরকারকে পদত্যাগ করুক। পদত্যাগ করে একটা নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে হবে। নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশনের মাধ্যমে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন করতে হবে। এই জন্য বিএনপির নেতাকর্মীদের দুর্বার গনআন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। দেশ যাবে কোন পথে ফায়সালা হবে রাজপথে।

শনিবার (১৪ মে) স্থানীয় ইনস্টিটিউট মাঠ প্রাঙ্গণে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী-বিএনপি দিনাজপুর জেলার দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন ও কাউন্সিল-২০২২ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তার বক্তব্যে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এসব কথা বলেন। জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত আহবায়ক মিসেস রেজিনা ইসলাম’র সভাপতিত্বে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। 

অনুষ্ঠানের শুরুতে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অন্যান্য অতিথিদের সাথে নিয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করেন এবং বেলুন উড়েয়ে সম্মেলন ও কাউন্সিলের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। 

প্রধান বক্তা বিএনপি’র মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর আরো বলেন, আওয়ামী লীগ আজকে বিচার বিভাগকে ধ্বংস করেছে, প্রশাসনকে ধ্বংষ করেছে, সংবাদ মাধ্যমকে দলীয়করণ করেছে। সমগ্র দেশটা তাদের মনে করে ধ্বংসের পথে নিয়ে যাচ্ছে। মির্জা ফখরুল বলেন, আমাদের স্বপ্ন ছিল একটা সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গরবো। আজ ৫০ বছর পরে এসেও বেদনা হতাশ হয়ে পড়েছি। যারা সব সময় স্বাধীনতা ও গনতন্ত্রের কথা বলে, তারাই আজ গনতন্ত্রকে হত্যা করে স্বাধীনতার স্বপ্নকে ধ্বংস করে দিয়েছে। 

মির্জা খখরুল আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের উদ্দেশে বলেন, গতকাল (শুক্রবার) তিনি বলেছেন, যেসব নেতা হাজার হাজার কোটি টাকা দুর্নীতি করে পাচার করেছেন, তাদের আওয়ামী লীগে জায়গা হবে না। তাহলে আপনি নিজেই স্বীকার করেছেন আওয়ামী লীগের নেতারা দুর্নীতি করে টাকা বিদেশে পাচার করেছেন। আজ আপনাদের দুর্নীতির সীমা এতটাই বেড়ে গেছে  যে, র‌্যাবের মত একটি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র স্থগিতাদেশ দিয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মানবাধিকার রিপোর্ট বলেছে, বেগম জিয়াকে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে জেলে দিয়েছে। তাকে যে কারাগারে দিয়েছে তা রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে দিয়েছে। 

মির্জা ফখরুল আরো বলেন, আমাদেরকে নতুন বাংলাদেশ ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ তৈরী করতে হবে। এ জন্য বিএনপির তরুন নেতাকর্মীদেরকে এগিয়ে আসতে হবে। কারণ তাদের ঐতিয্য রয়েছে, তারা আন্দোলন করেছে, কারাগারে গিয়েছে। তাই তাদেরকে এগিয়ে আসতে হবে। তিনি এই সম্মেলন সফল করার জন্য দলীয় নেতাকর্মীদের ধন্যবাদ জানান।  

সম্মেলন ও কাউন্সিলে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন দলের জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু। বিশেষ বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান ও জেলা বিএনপির সম্মেলনের প্রধান সমন্বয়কারী ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ আসাদুল হাবিব দুলু, রংপুর বিভাগীয় কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল খালেক, রংপুর বিভাগীয় কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও দিনাজপুর পৌরসভার মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম, জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য এজেডএম রেজওয়ানুল হক, আখতারুজ্জামান মিঞা, মোঃ মকশেদ আলী মঙ্গলিয়া ও জেলা বিএনপির সম্মেলন ও কাউন্সিল প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব এ্যাড. আনিসুর রহমান চৌধুুরী। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক হাসানুজ্জামান উজ্জল। অনুষ্ঠানে জেলা বিএনপির সম্মেলন ও কাউন্সিল প্রস্তুতি কমিটির সকল সদস্য উপস্থিত ছিলেন। 

বিশেষ অতিথি স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু বলেন, এই সরকারের অধীনে কোন রকম নির্বাচন হতে পারবে না। গত ১৩টি বছর ধরে এই সরকার জগতদল পাথরের মত বসে আছে। এই জগতদল পাথরকে আগে হঠাতে হবে। কারণ তারা বার বার দেশের জনগণকে পরাজিত করেছে। এবার সরকারকে পরাজিত করে করে যে নির্দলীয় সরকার প্রতিষ্ঠা হবে তার অধীনেই বিএনপি নির্বাচনে অংশ নিবে। 

বিশেষ বক্তা জাতীয় নির্বাহী কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন, আমরা এই স্বেরাচারী সরকারকে বিদায় করে তত্বাবধায়ক সরকার প্রতিষ্ঠা করবো। আজকের কাউন্সিলে নির্বাচিত নতুন নেতৃত্ব ঐক্যের রাজনীতি করে দিনাজপুরকে এগিয়ে নিবে। বিশেষ বক্তা দলের সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ আসাদুল হাবিব দুলু বলেন, তত্বাবধায়ক সরকার অঅদায় সহজ হবে না। সোজা আঙ্গুলে হবে না। আঙ্গুলকে বাঁকা করেই তত্বাবধায়ক সরকারের দাবী অঅদায় করতে হবে। 

এদিকে সম্মেলন ও কাউন্সিল উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে জেল রোডস্থ দলীয় কার্যালয়ে কাউন্সিলে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এতে জেলার ১৩টি উপজেলার ২০টি ইউনটের ১ হাজার ৯শ’ ১৯ জন ভোটার (কাউন্সিলর) ভোট প্রদান করবেন। 

উল্লেখ্য, জেলা বিএনপির নির্বাচনে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ৭টি পদে একজন মহিলা প্রার্থীসহ মোট ১৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ৭টি পদের মধ্যে রয়েছে সভাপতি, সিনিয়র সহ-সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং ৩ জন সাংগঠনিক সম্পাদক। সভাপতি পদে ৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বনিদ্বতা করছেন। তারা হলেন-মোঃ আব্দুল হালিম, মোঃ হাফিজুর রহমান সরকার, এ্যাড. মোঃ মোফাজ্জল হোসেন দুলাল ও  আলহাজ¦ মোঃ সাদিক রিয়াজ চৌধুরী পিনাক।
সিনিয়র সহ-সভাপতি দুইজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হলেন মোঃ খালেকুজ্জামান বাবু ও মোঃ মোকাররম হোসেন। সাধারণ সম্পাদক পদে দুইজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হলেন হলেন-মোঃ আখতারুজ্জমান জুয়েল ও বখতিয়ার আহমেদ কচি। 

যুগ্ম সম্পাদক পদে ৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হলেন-মোঃ মোস্তফা কামাল মিলন, মোঃ শাহিন খান ও মুরাদ আহম্মেদ। এবং সাংগঠনিক সম্পাদক পদে ৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হলেন মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, মোঃ আনিসুর রহমান বাদশা, মোঃ আমিনুল ইসলাম মুন্না, মোঃ সোহেল নিশাত ও একমাত্র মহিলা প্রার্থী জেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক প্রয়াত মুকুর চৌধুরীর সহধর্মিনী হাসনা হেনা চৌধুরী হিরা। 

উল্লেখ্য, ২০১০ সালের ২৬ জানুয়ারী দিনাজপুর বিএনপি’র সর্বশেষ কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়েছিল। পরে ২০১৬ সালের আগষ্ট মাসে ওই কমিটি ভেঙে দিয়ে ১৩১ সদস্যবিশিষ্ট আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়। ওই কমিটি দিয়েই এতদিন জেলা বিএনপি’র কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। দীর্ঘ ১২বছর পর দিনাজপুর জেলা বিএনপির কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

সময় জার্নাল/ইএইচ


Somoy Journal is new coming online based newspaper in Bangladesh. It's growing as a most reading and popular Bangladeshi and Bengali website in the world.

যোগাযোগ:
এহসান টাওয়ার, লেন-১৬/১৭, পূর্বাচল রোড, উত্তর বাড্ডা, ঢাকা-১২১২, বাংলাদেশ
কর্পোরেট অফিস: ২২৯/ক, প্রগতি সরণি, কুড়িল, ঢাকা-১২২৯
ইমেইল: somoyjournal@gmail.com
নিউজরুম ই-মেইল : sjnewsdesk@gmail.com

কপিরাইট স্বত্ব ২০১৯-২০২২ সময় জার্নাল