শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২

শান্তি পূর্ণভাবে শেষ হলো কুমিল্লা সিটির ভোট

বুধবার, জুন ১৫, ২০২২
শান্তি পূর্ণভাবে শেষ হলো কুমিল্লা সিটির ভোট

জেলা প্রতিনিধি:


নির্বাচন চলাকালে কেন্দ্র দখল বা প্রভাব বিস্তারের মতো বড় কোনো ঘটনা নেই। মেয়র বা কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে হয়নি কোনো ধরনের পাল্টাপাল্টি ধাওয়া।


নির্বাচনকেন্দ্রিক পরিচিত এসব পরিবেশের উল্টো চিত্র কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের নির্বাচনে দেখা গেছে। পুরো সময়টায় দু-একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া ভোট হয়েছে শান্তিপূর্ণভাবে। আজ বুধবার সকাল আটটা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছিল। শেষ হলো বেলা চারটায়। এ সময় অবশ্য বড় দুই বিঘ্ন ঘটেছে। একটি প্রাকৃতিক, অন্যটি যান্ত্রিক। দুই কারণেই ভোট দেওয়ার গতি হয়েছে ধীর। আর ভোটারদের মধ্যে উৎসবের আমেজটাও তেমন লক্ষ্য করা যায়নি।


সকাল নয়টার দিকে শুরু হয় ঝুম বৃষ্টি। তাতে এক দফা বিঘ্ন ঘটে ভোটের। আর দিনমান বিভিন্ন কেন্দ্রে ইভিএমের কারণে ধীর গতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। ক্ষমতাসীন দল এবং বিরোধী প্রার্থীরাও ধীর গতি নিয়ে কথা বলেছেন।

কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের এটি তৃতীয় নির্বাচন। ১০৫টি ভোটকেন্দ্রের ৬৪০টি বুথে ইভিএমে ভোট গ্রহণ চলছে। ২৭টি ওয়ার্ড মোট ভোটার ২ লাখ ২৯ হাজার ৯২০ ভোটার।

ভোটকেন্দ্রে ভোটারদের স্বতঃস্ফূর্ত উপস্থিতি। হোচ্ছামিয়া লুৎফুন্নেছা বালিকা উচ্চবিদ্যালয়, ১৫ জুন


ভোটকেন্দ্রের দায়িত্বরত প্রিসাইডিং কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, দুপুর ১২টা পর্যন্ত সাতটি কেন্দ্রে গড়ে ৩৮ শতাংশ ভোট পড়েছে। চৌয়ারা বালিকা উচ্চবিদ্যালয় এবং চৌয়ারা ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসায় দুই কেন্দ্রেই ৪৪ শতাংশ ভোট পড়েছে। সর্বনিম্ন ৩০ শতাংশ ভোট পড়েছে ধনাইতরী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে।

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিভিন্ন কেন্দ্রে ভোটারদের ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা ও ধীর গতিতে ভোট গ্রহণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। তবে ব্যতিক্রম চিত্র দেখা গেছে, ২৫ নম্বর ওয়ার্ডের তারাপাইয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পুরুষ কেন্দ্রে।


কেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা প্রিসাইডিং কর্মকর্তা এনামুল হক খান প্রথম আলোকে বলেন, সকাল থেকে ভোটারদের চাপ ছিল বেশি। দুপুর ১২টার মধ্যেই ৫০ শতাংশের মতো ভোট ও গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। এই কেন্দ্রে ভোটার ১ হাজার ৯৭৬ জন।

কুমিল্লা সিটির নির্বাচনে এবার মেয়র পদে লড়ছেন পাঁচজন। নৌকা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরফানুল হক (রিফাত)। বিএনপি থেকে বহিষ্কৃত ও সিটির সদ্য বিদায়ী মেয়র মনিরুল হক (সাক্কু) স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে লড়ছেন টেবিলঘড়ি নিয়ে।

নির্বাচনে আজ সকাল সোয়া নয়টার দিকে ভোট দেন স্বতন্ত্র প্রার্থী মনিরুল হক। তিনি বলেছেন, ভোটের পরিবেশ ভালো। তবে তিনি অভিযোগ করেন, ইভিএমে ধীরগতিতে ভোট গ্রহণ চলছে।


কিছু জায়গায় ভোটাররা ভোট দিতে পারেননি বলে অভিযোগ করেছেন নির্বাচনী প্রচারের সময় ব্যাপকভাবে আলোচিত সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দীন। ভোট দিতে এসে তিনি বলেন, ভোটার আইডি নিয়ে গেছেন কিন্তু স্লিপ নিয়ে যাননি। তাই ভোট দিতে দেয়নি। ভোটারের চিঠি তো ভোটের অংশ না। ম্যাজিস্ট্রেট আইডি আটকে রেখেছেন।

ইভিএম নিয়ে ননা মজার কাণ্ডও হয়েছে ভোটের সময়। কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের আলিয়া মাদ্রাসার একটি কেন্দ্রে ভোট দেওয়া নিয়ে বিভিন্ন মজার ঘটনার কথা জানান প্রিসাইডিং কর্মকর্তা মো. নাইমুর রহমান। তিনি বলেন, সকালে এক ভোটার গোপন কক্ষে গিয়ে ব্যালটে চাপ দেওয়ার পর শব্দ শুনে তিনি ভয় পেয়ে বের হয়ে যান। তাঁর ভোট অসম্পূর্ণ থাকায় অন্য ভোটও নেওয়া যাচ্ছিল না। তাঁকে বুঝিয়ে ফের ভোট দিতে গোপন কক্ষে পাঠানো হয়। এ ছাড়া দুই ভোটার ইভিএমের ইলেকট্রিক ব্যালটে চাপ দিতে গিয়ে নিচে ফেলে দেন বলেও জানান প্রিসাইডিং কর্মকর্তা।



ইভিএমের ধীর গতির কারণে বিশেষ করে নারী ভোটারেরা অসুবিধায় পড়েছেন। সকাল আটটায় সিটি করপোরেশনের ২২ নম্বর ওয়ার্ডে পদুয়ার বাজার মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দিতে এসেছিলেন অন্তঃসত্ত্বা খাদিজা বেগম। তিনি জানান, দুই ঘণ্টা ধরে গরমের মধ্যে তিনি লাইনে দাঁড়িয়ে ছিলেন। অনুরোধ করেও আলাদাভাবে ভোট দেওয়ার সুযোগ পাননি। তিনি একপর্যায়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন। প্রিসাইডিং কর্মকর্তা বলছেন, অনুরোধ করেও ভোট দিতে না পারার বিষয়টি তিনি জানেন না।

ভোটকক্ষে পোলিং এজেন্টরা বসে আছেন আলাদা আলাদা টেবিলে। ভোটাররা প্রবেশ করছেন একজন একজন করে

ভোটকক্ষে পোলিং এজেন্টরা বসে আছেন আলাদা আলাদা টেবিলে। ভোটাররা প্রবেশ করছেন একজন একজন করে


কুমিল্লা সিটির নির্বাচনে বিভিন্ন কেন্দ্রে ভোটারদের ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা ও ধীর গতিতে ভোট গ্রহণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। তবে ব্যতিক্রম চিত্র দেখা গেছে, ২৫ নম্বর ওয়ার্ডের তারাপাইয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পুরুষ কেন্দ্রে।

কেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা প্রিসাইডিং কর্মকর্তা এনামুল হক খান প্রথম আলোকে বলেন, সকাল থেকে ভোটারদের চাপ ছিল বেশি। দুপুর ১২টার মধ্যেই ৫০ শতাংশের মতো ভোট ও গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। এই কেন্দ্রে ভোটার ১ হাজার ৯৭৬ জন।

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিভিন্ন ভোটকেন্দ্রে জাল ভোট প্রদান ও গোলযোগের চেষ্টার দায়ে ছয়জনকে সাজা দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে একজনকে তিন মাসের সাজা দেওয়া হয়। অপর পাঁচজনকে তিন থেকে এক সপ্তাহের সাজা দেওয়া হয়।

বৃষ্টি উপেক্ষা করে কেন্দ্রে ভোট দিতে লাইনে দাঁড়িয়েছেন ভোটাররা। আহিদউল্লাহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, কুমিল্লা, ১৫ জুন

বৃষ্টি উপেক্ষা করে কেন্দ্রে ভোট দিতে লাইনে দাঁড়িয়েছেন ভোটাররা। আহিদউল্লাহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, কুমিল্লা, ১৫ জুন


কুমিল্লা জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ কামরুল হাসান এই তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ছয়জনকে সাজা দেওয়া হয়েছে।

সংরাইশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্র থেকে পাঁচ বহিরাগতকে সকাল সোয়া ১০টায় আটক করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। এ সময় জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান, পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ, বিজিবি ও র‍্যাবের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। এ সময় জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান বহিরাগতদের এলাকা ছাড়ার জন্য মাইকিং করেন।


সময় জার্নাল/এসএম




Somoy Journal is new coming online based newspaper in Bangladesh. It's growing as a most reading and popular Bangladeshi and Bengali website in the world.

যোগাযোগ:
এহসান টাওয়ার, লেন-১৬/১৭, পূর্বাচল রোড, উত্তর বাড্ডা, ঢাকা-১২১২, বাংলাদেশ
কর্পোরেট অফিস: ২২৯/ক, প্রগতি সরণি, কুড়িল, ঢাকা-১২২৯
ইমেইল: somoyjournal@gmail.com
নিউজরুম ই-মেইল : sjnewsdesk@gmail.com

কপিরাইট স্বত্ব ২০১৯-২০২২ সময় জার্নাল