শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১

অন্ধদের সমালোচনার আঙিনা!

বুধবার, জুলাই ১৪, ২০২১
অন্ধদের সমালোচনার আঙিনা!

ইমরান মাহফুজ: বাংলাদেশের সাহিত্য আলােচনা করতে গেলে আমাদের অধিকাংশ হাদিস কোরআনের নিয়ম নীতি খুলে বসে। নিজেকে আধুনিক প্রগ্রতিশীল দাবী করা লোকটাও ধর্মান্ধদের মতো আচরণ করে। কবি কবিতা লিখে। তাতে থাকে সত্য মিথ্যা মিথ-বাস্তব অবাস্তব মিশেল! তাতে শিল্প না দেখে, দেখে কেউ কেউ নীতি! দায় ভুলে খুঁজে সততা। সিলেবাসের বাইরে প্রশ্ন করে কাটিয়ে দেয় দিনের পর রাত।

পাঠক মাত্র জানেন কবি টি.এস. এলিয়ট ছিলেন ফ্যাসিবাদের সমর্থক। আধুনিক চিন্তার মানুষ এজরা পাউন্ডও দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে হলেন মুসোলিনির মর্মসঙ্গী। ফরাসি সিম্বলিস্ট কবি জাঁ আর্তুর র‌্যাবো রাষ্ট্রবিরোধী চোরাচালানে যুক্ত হলেন। 

আসলে পেশা আর নেশা ছাড়াও শিল্পীদের অস্থিরতা কাল থেকে কালান্তর। দস্তয়েভস্কির মতো কেউ জুয়া খেলা, তলস্তয়ের মতো কেউ পাপ ও পূণ্যের দ্বন্দ্বে ভুগে কখনও ভূমিদাসীর গর্ভেও সন্তানের জন্ম দেন। কার্ল মার্কস পরিচারিকার সন্তানের পিতা হয়েছিলেন। আবার মাইকেল মধুসূদন দত্তের মতো কেউ মদে উড়িয়ে দেন সব সঞ্চয়। হালের হেলাল হাফিজ সারাজীবন জুয়া খেলায় সঁপেছেন জীবন।

''এই খাপছাড়া আচরণগুলোর জবাব নেই। শিল্পী ভিন্নজগতের কেউ নন, অনেকের মতোই স্খলিত পতন-উন্মুখ মানব।'' আল মাহমুদ ও হুমায়ূন আহমেদকে নিয়ে কথা এলেই অধিকাংশ ব্যক্তিগত বিষয় নিয়ে হাজির হয়। অথচ ব্যক্তিগত জীবন ও শিল্প সাহিত্য আলাদা এটা বুঝা উচিৎ। পথ ও পথচারী যেমন আলাদা। কেবল ব্যক্তিগত জীবন দেখেই কাউকে খারিজ করে দিতে পারলে টি.এস. এলিয়ট, এজরা পাউন্ড,  আর্তুর র‌্যাবো,  দস্তয়েভস্কি, তলস্তয়, কার্ল মার্কসকে অনেক আগে হারিয়ে দেয়া যেতো!

হুমায়ূন নিয়ে তার সমসাময়িক লেখক ও সমালোচকদেরও ছিল ভিন্ন দৃষ্টি। সমালোচনার জায়গাটিকে দুটি আঙ্গিকে দেখা যায়। এক পক্ষের সমালোচকরা হুমায়ূন আহমেদকে লেখালেখির জগতের কিংবদন্তী কিংবা দেবতা হিসেবে দেখেন। অপরপক্ষ তার লেখাকে সস্তা, অপাঠ্য এবং কোনো ক্ষেত্রে ‘অপন্যাস’ বলেও আখ্যা দিয়েছেন। তবে  আল মাহমুদ,  হুমায়ূন নিয়ে ঠিকঠাক সাহিত্যের বিশ্লেষণ এখন পর্যন্ত হয়নি। আশা করা যায়, কুয়াশা কাটিয়ে আগামী দিনে তাদের সাহিত্যকর্মের যথাযথ নিরপেক্ষ মূল্যায়ন হবে।

নোট
১. আমি সাহিত্য সংস্কৃতির সঙ্গে ব্যক্তিগত জীবন আনার চেষ্টা করি না। আমি জানি মানুষ মাত্রই নগ্ন! যে যত বড় সে তত বেশি উচ্চমাধ্যমিক নগ্নের দোকানী! সবার থেকে সব নেই না। 

আদর্শের জন্য রাসুলুল্লাহ সাঃ এর বাহিরে কাউকে মাথায় নেই না।

২. হুমায়ুন আহমেদ নিয়ে একটি যথাযথ মূল্যায়ন/ সম-আলোচনার বইয়ের কাজ করছি। বের হবে তার জন্মদিনে)

লেখকঃ কবি ও সাংবাদিক। 

সময় জার্নাল/এমআই 


Somoy Journal is new coming online based newspaper in Bangladesh. It's growing as a most reading and popular Bangladeshi and Bengali website in the world.



স্বত্ব ২০২১ সময় জার্নাল | ডেভেলপার এম রহমান সাইদ