বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২

সম্পর্ক কেন টিকছেনা

বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২১
সম্পর্ক কেন টিকছেনা

আশ্রাফুল আলম ভূঁইয়া :

এইতো কিছুদিন আগেই একজন জনপ্রিয় নাট্য অভিনেতা তৃতীয়বারের মত বিয়ে করেছেন,এটা অনেকগুলো নিউজপোর্টালেই এসেছে। শুধু তিনি না আমাদের ফীল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করা খুব কমই মডেল/সেলিব্রেটি রয়েছে যাদের বিবাহবিচ্ছেদ হয়নি!! এক কথায় ইদানিং কোন সম্পর্কই টিকছেনা।

প্রশ্ন হল কেন টিকছেনা?!

যাদের ক্ষেত্রে এমন হচ্ছে তারা মূলত নাটক সিনেমায় ভালো চরিত্রের অভিনয় করলেও তাদের বাস্তব জীবনে তার ছিটেফোঁটাও অনুসরণ নেই। আমি বাংলাদেশী একজন জনপ্রিয় গায়িকাকে চিনি যিনি ১১ বছর প্রেম করেছে কিন্তু ১১ দিনও সংসার করতে পারেনি বিয়ের পর,বিচ্ছেদ হয়েছে। এই যে অমুকের বউ তমুকের সাথে আবার তমুকের বউ অমুকের সাথে বার বার রদবদল হচ্ছে এটার সবচেয়ে বড় কারণ হল পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ, সম্পর্কের গুরুত্ব না দেয়া এবং ইগো। অথচ তাদের বিবাহবিচ্ছেদের ফলে তাদের সন্তানদের ভবিষ্যৎ, আত্মমর্যাদাও নষ্ট হয় অথচ এরা কেউই এসব নিয়ে ভাবেনা। তাদের কাছে হয়তো এটা খুবই সিম্পল ব্যাপার।

সম্পর্ক খুব সহজ ব্যাপার নয়। এটা টিকিয়ে রাখতে আত্মত্যাগ প্রয়োজন,ধৈর্য প্রয়োজন, পরিচর্যা প্রয়োজন। একটা গাছকে যেমন পরিচর্যা করতে না করলে আগাছায় ভরে যায় অথবা পাতাগুলো শুকিয়ে একটা সময় গাছটিও মরে যায় সম্পর্কটাও ঠিক তেমনই একটা বিষয়,এটাকে যত বেশি পরিচর্যা করবেন তত সুন্দর হবে,টিকে থাকবে।

আপনি বীর পুরুষ একটু থেকে একটু কথা-কাটাকাটি হলেই স্ত্রীকে মারধর করবেন,গালাগাল করবেন আবার আপনি নারী কিন্তু সারাক্ষণ বাসায় স্বামীকে ঘ্যানরঘ্যানর করবেন, যেটা সেটা নিয়ে রাগারাগি করবেন,সবকিছু নিয়ে সন্দেহ করবেন,মেন্টালি টর্চার করবেন দু পক্ষের জন্যই এসব অশোভনীয় আচরণ। আর প্রচন্ড রাগ উঠলে কোন একজন শান্ত হয়ে ভালো মুহুর্তগুলোর কথা চিন্তা করবেন,দেখবেন কিছুক্ষণ পর সবই সাইলেন্ট হয়ে যাবে।

আমাদের জীবনে পণ্য হলো ব্যবহার করার জন্য, আর মানুষ হলো ভালোবাসার জন্য । আমরা এখন পণ্যকে ভালোবাসি আর মানুষকে ব্যবহার করি।


সম্পর্কগুলোতে মানুষ থাকে দেখে, সেগুলোকেও আমরা ব্যবহার করি। কোনো না কোনোভাবে তাই টেকে না। যারা সম্পর্কগুলোকে ভালোবাসে তাদের টা টেকে, সংখ্যায় কম কিন্তু আছে।

খারাপ সময়ে ভালো মুহূর্তের কথা মনে পড়ে বলেই কত সম্পর্ক এখনো অটুট আছে, আলহামদুলিল্লাহ। বিনয়ী হয়ে ভুল টা নিজের না তবুও সরি বলে অপরজনকে মানসিক শান্তি দেওয়াটা খুব একটা দোষের না, চাইলেই সম্ভব। এটা নারী পুরুষের উভয়ের ই ভাবনা হওয়া উচিত। ইগো, অভিমান ,রাগ, আত্ম অহংকারের চাইতেও সম্পর্কের মূল্য বেশি। আফসোস এমন মানুষ এর বড় ই অভাব এ জগতে। আমি নিজেও এই ভাবনাটা লালন করি। আমার কাছে আমার থেকেও আমার সম্পর্কগুলোর মূল্য অনে-ক বেশি। মায়া মমতায় জড়িয়ে থাকার মাঝে যে কি শান্তি তা অনেক self-respectary ego লালন করা লোকগুলো জানেই না।

স্যাক্রিফাইস করুন, সম্পর্কগুলোকে রেসপেক্ট করুন, টিকিয়ে রাখুন, ভালো থাকুন।

লেখকঃ আশ্রাফুল আলম ভূঁইয়া উপদেষ্টাঃ 'বাংলাদেশ তরুণ কলাম লেখক ফোরাম', বৃহত্তর চট্টগ্রাম শাখা।


Somoy Journal is new coming online based newspaper in Bangladesh. It's growing as a most reading and popular Bangladeshi and Bengali website in the world.

যোগাযোগ:
এহসান টাওয়ার, লেন-১৬/১৭, পূর্বাচল রোড, উত্তর বাড্ডা, ঢাকা-১২১২, বাংলাদেশ
কর্পোরেট অফিস: ২২৯/ক, প্রগতি সরণি, কুড়িল, ঢাকা-১২২৯
ইমেইল: somoyjournal@gmail.com
নিউজরুম ই-মেইল : sjnewsdesk@gmail.com

কপিরাইট স্বত্ব ২০১৯-২০২২ সময় জার্নাল